• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৯ রাত

ভোলায় সংঘর্ষে নিহত ৪, বিজিবি মোতায়েন

  • প্রকাশিত ০২:৪৬ দুপুর অক্টোবর ২০, ২০১৯
ভোলা
ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ফেসবুকে 'ধর্মীয় অবমাননার' অভিযোগের জের ধরে পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় জনগণের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঢাকা ট্রিবিউন

এলাকায় এখনো থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ফেসবুকে 'ধর্মীয় অবমাননার' অভিযোগের জের ধরে পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় জনগণের সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছে। এই ঘটনায় পুলিশের ১০ সদস্যসহ আরও শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। 

রোববার (২০ অক্টোবর) সকাল ১০টায় স্থানীয় লোকজন একত্রিত হয়ে বোরহানউদ্দিন থানা ঘেরাও করলে পুলিশের সঙ্গে এ সংঘর্ষ বাধে।

নিহতরা হলো-বোরহানউদ্দিন উপজেলার  মহিউদ্দিন পাটওয়ারীর মাদ্রাসার ছাত্র মাহবুব (১৪), উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের দেলওয়ার হোসেনের ছেলে শাহিন (২৩), বোরহানউদ্দিন পৌর সভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মাহফুজ (৪৫) ও মনপুরা হাজিরহাট এলাকার বাসিন্দা মিজান (৪০)।

আহতদের অর্ধশতাধিক ব্যক্তিকে বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে এবং ৪০ জনকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ১০ থেকে ১৫ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

এর আগে শনিবার (১৯ অক্টোবর) ইসলাম ধর্ম নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি করার অভিযোগে বিপ্লব নামের হিন্দু এক যুবককে আটক করে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ।

সরেজমিনে দেখা যায়, ঘটনাস্থলে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে।

ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়ছার বলেন, "বোরহানউদ্দিন উপজেলার বিপ্লব নামের এক যুবকের ফেইসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে। আমরা হ্যাকের সাথে যারা জড়িত তাদেরকে আটক করেছি। আমরা এ নিয়ে গত রাতে স্থানীয় আলেমদের সাথে কথা বলেছি। তারা বলেছেন আজকের প্রোগ্রাম হবে না।" 

"কিন্তু সকাল থেকে আমাদের কাছে খবর আসে সেখানে মাইকিং হচ্ছে এবং স্টেজ বানানো হচ্ছে। সেখানে গিয়ে আমরা উপস্থিত মুসল্লীদের সাথে কথা বলেছি এবং আমি নিজে সেখানে বক্তব্য দিয়েছি। তারা সবাই আমার বক্তব্য শুনেছে। যখন আমি স্টেজ থেকে নেমে আসি তখন এক দল উত্তেজিত জনতা আমাদের ওপর হামলা চালায়। আমরা আত্মরক্ষার্থে একটি রুমে গিয়ে আশ্রয় নেই। তারা আমাদের রুমের জানালা ভেঙ্গে ফেললে আমরা প্রথমে শটগানের ফাঁকা গুলি ছুড়ি। পরবর্তীতে এতে কাজ না হওয়ায় উপরের দিকে গুলি চালাই।" 

এসপি আরও বলেন, "আমার জানা মতে একজন পুলিশ সদস্যের বুকে গুলি লেগে গুরুতর আহত হয়েছেন। আমরা আহত অবস্থায় যাদের হাসপাতালে পাঠিয়েছি তাদের মধ্যে তিন জন নিহত হয়েছে। তবে বাকি আরও থাকতে পারে সেটা আমাদের কাছে তথ্য নেই।" 

এদিকে পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্য মোতায়েন করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিকি। তিনি বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থে ঢাকা থেকে চার প্লাটুন বিজিবি হেলিকপ্টারযোগে ঘটনাস্থলে আসছে।