• সোমবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৫ দুপুর

সু চি: রোহিঙ্গা ইস্যুটিকে সমাধানের ইচ্ছা আছে

  • প্রকাশিত ০৮:১৭ রাত অক্টোবর ২২, ২০১৯
মিয়ানমারের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চি।
মিয়ানমারের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চি। ছবি : রয়টার্স

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সাথে সু চি’র দেখা হলে আবে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির জন্য সু চি’র প্রতি আহ্বান জানান

রোহিঙ্গা সমাধানের ইচ্ছা আছে বলে মন্তব্য করেছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। 

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে জাপানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সোমবার জাপানের নতুন সম্রাটের অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। ওই অনুষ্ঠানে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সাথে সু চি’র দেখা হলে আবে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির জন্য সু চি’র প্রতি আহ্বান জানান। 

জাপানি প্রধানমন্ত্রী বলেন, “রাখাইন রাজ্যে মানবাধিকার লংঘনের কারণে এটা অপরিহার্য হয়ে দাঁড়িয়েছে যে মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনী স্বাধীন তদন্ত কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।”

স্থানীয় সময় সোমবার তাদের মধ্যকার আনুমানিক ১৫ মিনিট স্থায়ী বৈঠক হয়।

আবে বলেন, “রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতির উন্নয়নে জাপান মিয়ানমারের প্রচেষ্টাকে সর্বাত্মক সহায়তা দেবে।”

জাতিগত সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকাগুলোর শান্তি প্রক্রিয়ার ব্যাপারে জাপানি প্রধানমন্ত্রী বলেন, “জাপান মিয়ানমারে নিযুক্ত জাপান সরকারের বিশেষ দূত সাসাকাওয়া ইয়োহেইর সাথে শান্তি প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সমর্থন অব্যহত রাখবে।”

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতে ইতিবাচক সাড়া দিয়ে সু চি বলেন, “এই ইস্যুটিকে সঠিকভাবে সমাধানের ইচ্ছে আমার আছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আমি ইসস্তত বোধ করব না।”

তিনি মিয়ানমারে জাতিগত সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে শান্তি প্রক্রিয়ায় সহায়তার জন্য বিশেষ দূত সাসাকাওয়া ও জাপানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।