• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৯ রাত

খুনের মামলায় হাইকোর্টে জামিন পেলো ৫ শিশু

  • প্রকাশিত ১০:৩৭ রাত অক্টোবর ২৩, ২০১৯
আদালত
প্রতীকী ছবি

তাদের মধ্যে দুজনের বয়স ১০ বছর, দুজনের ৯ ও একজনের ১৪ বছর

ময়মনসিংহে শিশু সাকিবুল হাসান অভিকে হত্যার অভিযোগে করা মামলায় পাঁচ শিশুকে আগাম জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট।

আত্মসমর্পণ করে আগাম জামিনের আবেদন জানালে বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি মো. রিয়াজ উদ্দিন খানের বেঞ্চ বুধবার (২৩ অক্টোবর) ৬ সপ্তাহের জন্য তাদেরকে জামিন দেন।

জামিন পাওয়া পাঁচ শিশু ময়মনসিংহ সদর থানার স্টেশন রোডের বাসিন্দা। তাদেরমধ্যে দু’জনের বয়স ১০ বছর, দুজনের ৯ ও একজনের ১৪ বছর। এসব শিশুর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ফজলুল হক খান ফরিদ ও সাইফুর রহমান রাহী।

পরে ফজলুল হক খান ফরিদ বলেন, হাইকোর্ট ৬ সপ্তাহের জন্য আগাম জামিন দিয়েছে। পাশাপাশি এই ৬ সপ্তাহের আগেই ময়মনসিংহের শিশু আদালতে তাদের আত্মসমর্পণ করতে বলেছে।

ময়মনসিংহ সদরের বাঘমারা গ্রামের পারভীন (৪২) গত ২৪ সেপ্টেম্বর কোতয়ালী থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। মামলার অভিযোগে বলা হয়, নিহত সাকিবুল হাসান অভি (৮) শহরের কালিবাড়ি প্রিমিয়ায় আইডিয়াম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণিতে পড়তো। গত ৬ জুলাই বেলা আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে ওই পাঁচ শিশু সাকিবকে খেলার জন্য ডেকে নিয়ে যায়। পরে বিকেল হয়ে গেলেও ঘরে ফিরে না আসায় খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। আসামিদের জিজ্ঞাসা করলেও কোনো সন্তোষজনক জবাব দেয়নি।

এজাহারে আরও বলা হয়, আসামিদের সঙ্গে নিহত সাকিবুল হাসান অভিকে কালিবাড়ি পুরাতন গুদারাঘাট বেড়িবাঁধ এলাকায় তার মামা খেলতে দেখে। পরবর্তীতে খোঁজাখুঁজি করে গোদারাঘাট নদীর পাড়ে পানি ভর্তি গর্তে শিশু অভির লাশ পাওয়া যায়। গত ৭ জুলাই পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে ভেবে কোতয়ালী থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করে শিশুটির মা।

পরবর্তীতে ময়নাতদন্ত রিপোর্টে দেখা যায়, ছেলেটি আঘাতগ্রস্ত হয়ে পানিতে ডুবে মারা গেছে। এ অবস্থায় গত ২৪ সেপ্টেম্বর ওই পাঁচ আসামির নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামাদের দ্বারা আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে অভিযোগে মামলা করেন শিশুটির মা।