• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৯ সকাল

বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ শেষে ভারত থেকে ফিরলো ৪ কিশোর

  • প্রকাশিত ০৩:৪১ বিকেল অক্টোবর ২৪, ২০১৯
সীমান্ত
বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ শেষে ভারত থেকে ফিরলো ৪ কিশোর ঢাকা ট্রিবিউন

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভারতের হিলি অভিবাসন পুলিশের ওসি শিপ্রা রায় ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি রফিকুজ্জামানের হাতে চার কিশোরকে তুলে দেন। জাস্টিজ এন্ড কেয়ার নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়

অনুপ্রবেশের দায়ে আটক হয়ে ভারতের শিশু শোধনাগারে ১৪ ও ১৬ মাস মেয়াদে কারাভোগ শেষ হলে ৪ কিশোরকে ফেরত দিয়েছে ভারতীয় অভিবাসন পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় হিলি সীমান্তের ২৮৫নং মেইন পিলারের ১১নং সাবপিলার সংলগ্ন চেকপোস্ট গেটের শূন্যরেখা দিয়ে, ভারতের হিলি অভিবাসন পুলিশের ওসি শিপ্রা রায় হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি রফিকুজ্জামানের হাতে চার কিশোরকে তুলে দেন।

জাস্টিজ এন্ড কেয়ার নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়। এসময় সেখানে বিজিবি’র হিলি আইসিপি ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার আলতাব হোসেন ও জাস্টিজ এন্ড কেয়ারের প্রজেক্ট অফিসার হাসিবুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

দেশে ফেরা চার কিশোর হলো, রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানার শালবাগান গ্রামের মিঠু হোসেনের দুই ছেলে-জহিরুল ইসলাম (১৪) ও আলামিন ইসলাম (১২), সুনামগঞ্জ জেলা সদরের ছরারপাড় গ্রামের সাহাবুদ্দিনের ছেলে নুর মোহাম্মদ (১৩) এবং পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারি উপজেলার তোরিয়া গ্রামের রাজু ইসলামের ছেলে আরিফ হোসেন (১২)।

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট ওসি রফিকুজ্জামান জানান, কোনপ্রকার বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই ওই চার কিশোর হিলি ও পঞ্চগড় সীমান্ত এলাকা দিয়ে বেড়ানোর উদ্দেশ্যে ভারতে প্রবেশ করলে দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী তাদের আটক করে। পরে তাদেরকে আদালতে উপস্থাপন করা হলে বয়স কম হওয়ায় তাদের চারজনকে বালুরঘাট ও রায়গঞ্জের দু’টি শিশু শোধনাগারে পাঠানো হয়। সেখানেই তারা এতদিন আটক ছিলো।

তিনি জানান, “সমস্ত কার্যক্রম শেষে বৃহস্পতিবার ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ ওই চার কিশোরকে আমাদের হাতে তুলে দেন, পরে আনুষ্ঠানিকতা শেষে আমরা তাদেরকে অভিভাবকদের কাছে বুঝিয়ে দেই।”