• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫২ রাত

অস্ত্র মামলায় ৫ দিনের রিমান্ডে কাউন্সিলর মিজান

  • প্রকাশিত ০৫:৪১ সন্ধ্যা অক্টোবর ২৪, ২০১৯
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান। মাহমুদ হোসেন অপু/ঢাকা ট্রিবিউন

ক্যাসিনো ব্যাবসায় সংশ্লিষ্টতা ও দুর্নীতির অভিযোগে গত ১১ অক্টোবর ভোর রাতে শ্রীমঙ্গলের গুহ রোডে একটি বাসা থেকে অস্ত্রসহ হাবিবুর রহমান মিজানকে আটক করা হয়

মৌলভিবাজারের শ্রীমঙ্গল থানায় র‌্যাবের দায়ের করা অস্ত্র মামলায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিজান ওরফে পাগলা মিজানকে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে মৌলভীবাজার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) ২নং চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সালেহী ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে নিশ্চিত করেছেন কোর্ট ইন্সপেক্টর মো. আব্দুল হাই চৌধুরী।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুছ ছালেক ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "কাউন্সিলর মিজানের ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছিল। রিমান্ড আবেদন শুনানির পর আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।"

প্রসঙ্গত, ক্যাসিনো ব্যাবসায় সংশ্লিষ্টতা ও দুর্নীতির অভিযোগে গত ১১ অক্টোবর ভোর রাতে শ্রীমঙ্গলের গুহ রোডে একটি বাসা থেকে অস্ত্রসহ হাবিবুর রহমান মিজানকে আটক করেন র‍্যাব-২ ও র‍্যাব-৯ এর শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের সদস্যরা। এসময় মিজানের কাছ থেকে একটি অবৈধ বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি, একটি ম্যাগাজিন ও নগদ দুই লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। পরদিন ১২ অক্টোবর দুপুরে শ্রীমঙ্গল থানায় র‍্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার মো. আবদুল জব্বার বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করেন।

আটকের পর মিজানকে সঙ্গে নিয়ে তার মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান চালান র্যা ব সদস্যরা। এ সময় তার বাসা থেকে ছয় কোটি ৭৭ লাখ টাকার চেক, এক কোটি টাকার এফডিআর উদ্ধার করা হয়। পরে মোহাম্মদপুর থানায় কাউন্সিলর মিজানের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিংয়ের আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়।