• রবিবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৫৫ সকাল

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত

  • প্রকাশিত ১২:৫৯ দুপুর অক্টোবর ২৭, ২০১৯
বন্দুকযুদ্ধ
প্রতীকী ছবি

পুলিশ জানায়, নিহত আবু সাঈদ আন্তঃজেলা ডাকাতদলের অন্যতম সদস্য। তার বিরুদ্ধে আড়াইহাজার ও সোনারগাঁও থানায় আট থেকে ১০টি ডাকাতির মামলা রয়েছে

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আবু সাঈদ ওরফে ছৈটকা (৩৫) নামে আন্তঃজেলা ডাকাতদলের এক সদস্য নিহত হয়েছে। নিহত আবু সাঈদ মাহমুদপুর ইউপির জোকারদিয়া গ্রামের নাজিম মিয়ার ছেলে। 

রবিবার (২৭ অক্টোবর) ভোরে পৌনে ৪টায় উপজেলার হাইজাদী ইউপির ইলুমদী এলাকায় দিকে এঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম।

পুলিশ জানায়, নিহত আবু সাঈদ আন্তঃজেলা ডাকাতদলের এক অন্যতম সদস্য। তার বিরুদ্ধে আড়াইহাজার ও সোনারগাঁও থানায় আট থেকে ১০টি ডাকাতির মামলা রয়েছে। এঘটনায় পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, শনিবার বিকালে মাহমুদপুর ইউপির জোকারদিয়া গ্রামে তার নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটকের পর তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক স্থানীয় উলুমদী এলাকায় ডাকাতদলের অন্য সদস্যদের গ্রেফতার করতে যায় পুলিশ। এসময় আগে থেকে ওঁৎপেতে থাকা অস্ত্রধারী ডাকাতদলের কয়েকজন সদস্য হামলা চালিয়ে আবু সাঈদকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশকে লক্ষ্য করে এলো-পাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে।

আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এসময় ডাকাত সদস্য সাঈদ ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার জরুরি বিভাগের কর্মরত চিকিৎসক মনিরুজ্জামান তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করেছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এছাড়া, এই বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছেন। এরা হলেন- এসআই সিরাজ (৪৭), এএসআই সবুজ চন্দ্র দাস (৩৮), কনস্টেবল লিটন মিয়া (২২) ও রফিকুল ইসলাম (৩৮)।