• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৫৪ দুপুর

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ভারতীয় জেলেদের অনুপ্রবেশ, ইলিশ শিকার

  • প্রকাশিত ০২:০৮ দুপুর অক্টোবর ২৭, ২০১৯
ইলিশ
ইলিশ। ছবি : মেহেদি হাসান/ ঢাকা ট্রিবিউন

‘ইলিশ নিধনে নিষেধাজ্ঞার সময় ভারতের জেলেরা আমাদের সীমানার মধ্যে এসে মাছ ধরেন, এ বিষয়ে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে কয়েক বছর ধরে স্মারকলিপি দিচ্ছি। তারপরও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি’

প্রজনন মৌসুমে ইলিশ শিকার বন্ধের সরকারি নির্দেশনার কারণে মাছ ধরা থেকে বাংলাদেশি জেলেরা বিরত থাকলেও নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধভাবে প্রবেশ করে ইলিশ শিকার করছে ভারতীয় জেলেরা। ফলে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছে রাজশাহীর স্থানীয় মৎস্যজীবীরা। তাদের অভিযোগ, সরকারিভাবে নিষেধাজ্ঞা থাকায় তারা মাছ ধরতে না পারলেও সেই সুযোগ ঠিকই কাজে লাগাচ্ছে ভারতীয় জেলেরা।

এ প্রসঙ্গে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার পদ্মাপাড়ের জেলে সিদ্দিক আলী জানান, সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকায় হাত গুটিয়ে অলস সময় কাটাচ্ছেন এখন। অথচ আইনের তোয়াক্কা না করেই বাংলাদেশের জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে পদ্মার ইলিশ তুলে নিয়ে যায় ভারতীয় জেলেরা।

অপর জেলে ইয়াকুব বলেন, “বরাবরই ভারতীয় জেলেরা মাছ ধরতে আসে।কিন্তু সেইদিন প্রায় এক কিলোমিটার ভেতরে ঢুকে বিজিবির সামনে পড়ে যাওয়ায় এক জেলেকে ধরে নিয়ে আসা হয়েছে। আমরা সরকারি আইন মেনে মাছ ধরছি না আর তারা মাছ ধরে নিয়ে চলে যাচ্ছে।”

চারঘাট উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম জানান, “প্রতিবছরই ভারতীয় জেলেরা বাংলাদেশে মা মাছ নিধনে যখন নিষেধাজ্ঞা থাকে তখন বাংলাদেশের জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে ইলিশ শিকার করে। অথচ ভারতীয় জেলেরা জানে যে, বাংলাদেশে ইলিশ মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা আছে।”

বাঘা উপজেলার সরেরহাট মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, “ইলিশ নিধনে নিষেধাজ্ঞার সময় ভারতের জেলেরা আমাদের সীমানার মধ্যে এসে মাছ ধরেন। আর আমরা নৌকা তুলে রেখেছি। এ বিষয়ে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে কয়েক বছর ধরে স্মারকলিপি দিচ্ছি। তারপরও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।”

রাজশাহী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা অলক কুমার সাহা বলেন, “পদ্মানদীর জলসীমা অনুযায়ী আমাদের জনবল কম। এরপরও আমরা আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সহযোগিতা নিয়ে মা ইলিশ সংরক্ষণের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।”

বিজিবি-১ এর অধিনায়ক ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ বলেন, “পদ্মায় বাংলাদেশের অভ্যন্তরে রাজশাহীতে জলসীমা রয়েছে ৭৮ কিলোমিটার। দুইদেশের মধ্যে কাঁটাতারের বেড়া রয়েছে। কিন্তু জলসীমায়পদ্মার ভাঙ্গনের কারণে অনেক জায়গা ফাঁকা রয়েছে। সেখান দিয়ে কৌশলে এসে মাছ ধরে নিয়ে যায়। বর্তমানে সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ কড়া পাহারায় রয়েছে।”

প্রসঙ্গত, ১৭ অক্টোবর বাংলাদেশের সীমান্তে অনুপ্রবেশ করে ইলিশ শিকারের সময় বিজিবি’র কাছে ধরা পড়ে এক ভারতীয় জেলে।