• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৬ রাত

ধর্ষণের খবর পেয়ে সন্তানের সামনেই আবারও মা'কে ধর্ষণ!

  • প্রকাশিত ০৪:২১ বিকেল অক্টোবর ২৭, ২০১৯
গণধর্ষণ
প্রতীকী ছবি। বিগস্টক।

খবর পেয়ে দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল গিয়ে গৃহবধূকে আবারও ধর্ষণ করেন

ভোলার মনপুরা উপজেলায় শিশু সন্তানের সামনেই মাকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এমনকি ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ারও হুমকিও দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। 

শনিবার (২৬ অক্টোবর) উপজেলার চর পিয়ালে এ ঘটনা ঘটে। পরে ভুক্তভোগী ওই নারী মনপুরা থানায় পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মনপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাখাওয়াত হোসেন জানান,  চরফ্যাশন উপজেলায় বাবার বাড়ি থেকে বেতুয়া লঞ্চঘাট হয়ে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় স্পিডবোটে ওই নারী মনপুরায় শ্বশুরবাড়ি ফিরছিলেন। পথে বোটে থাকা যাত্রী দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের বেলাল পাটোয়ারী (৩৫), মো. রাশেদ পালোয়ান (২৫), শাহীন খান (২২) ও কিরণ (২৬) জোর করে বোটটি পাশের চর পিয়াল এলাকায় নিয়ে যান। সেখানে আড়াই বছরের শিশু সন্তানের সামনেই ওই গৃহবধূকে গণধর্ষণ করেন।

ওসি আরও জানান, পরে খবর পেয়ে বোটের মালিক ও দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম (৩০) আরেকটি স্পিড বোট নিয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে গৃহবধূকে আবারও ধর্ষণ করেন। নজরুল ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করেন এবং বিষয়টি নিয়ে কথা বললে সেটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ারও হুমকি দেন।

ওসি সাখাওয়াত হোসেন জানান, অভিযুক্তদের আটক করতে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান অলিউল্লাহ কাজল জানান, চরে থাকা মহিষের বাথানিয়ারা ঘটনাটি তাকে জানালে তিনি মনপুরা থানার ওসিকে বলেন। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে চর পিয়াল থেকে পুলিশ ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে মনপুরা থানায় নিয়ে আসে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অভিযুক্তরা পালিয়ে যান।