• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০১ দুপুর

নুসরাত হত্যা মামলার রায়ের ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে প্রেরণ

  • প্রকাশিত ০৭:১৯ রাত অক্টোবর ২৯, ২০১৯
নুসরাত হত্যা মামলা
নুসরাত হত্যা মামলার পূর্ণাঙ্গ রায়ের ডেথ রেফারেন্স কপি হাইকোর্টে প্রেরণের জন্য সংশ্লিষ্ট আদালতের অফিস সহকারীর কাছে হস্তান্তর। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী বলেন, 'আশা করি অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয় থেকে দ্রুত শুনানির উদ্যোগ নেওয়া হবে'

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার মামলার পূর্ণাঙ্গ রায়ের ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ডাদেশ) কপি হাইকোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) দুপুর দেড়টার দিকে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারেকের আদালত থেকে লাল কাপড়ে মুড়িয়ে পূর্ণাঙ্গ রায়ের দুই হাজার ৩২৭ পৃষ্ঠার কপিটি নিয়ে হাইকোর্টে জমা দেওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট আদালতের অফিস সহকারী । 

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের অফিস সহকারী শামসুদ্দিন ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, চাঞ্চল্যকর নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার পূর্ণাঙ্গ রায়ের কপিটি নিয়ে তিনি ফেনীর আদালত থেকে হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রারের উদ্দেশ্যে ঢাকার পথে রয়েছেন। 

ফেনী জজকোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর ও মামলার সরকার পক্ষের আইনজীবী হাফেজ আহমেদ ঢাকা টিবিউনকে বলেন, আসামিদের মৃত্যুদণ্ডের রায় অনুমোদনের জন্য মামলার নথি ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৭৪ ধারা মোতাবেক ডেথ রেফারেন্স আকারে পাঠানো হয়েছে হাইকোর্টে।

তিনি আরও বলেন, ৩৭৪ ধারায় বলা হয়েছে দায়রা আদালত যখন মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করেন, তখন হাইকোর্ট বিভাগের কাছে কার্যক্রম পেশ করতে হবে এবং হাইকোর্ট বিভাগ অনুমোদন না করা পর্যন্ত দণ্ড কার্যকর করা হবে না। 

তিনি বলেন, “খবরে পড়েছি, নুসরাত হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স প্রস্তুত হলে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়কে নির্দেশ দিয়ে দ্রুত শুনানির উদ্যোগ নেওয়া হবে। মামলা নিষ্পত্তিতে যাতে কম সময় লাগে, সে বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেলের সঙ্গে আমি কথা বলবো। তার এমন উদ্যোগী ভূমিকায় মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবীরা আশাবাদী।' 

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী এম শাহ জাহান সাজু বলেন, “নুসরাত হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উচ্চ আদালতে শুনানির জন্য আইন মন্ত্রণালয় থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়কে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।  

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদ নুসরাত জাহান রাফিকে হাত-পা বেঁধে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় ১৬ আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেন। আসামিদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়। এই টাকা আদায় করে নুসরাতের পরিবারকে দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত।