• শুক্রবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৬ রাত

কিশোর আলোর অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  • প্রকাশিত ০৯:১৬ সকাল নভেম্বর ২, ২০১৯
নাঈমুল আবরার
নাঈমুল আবরার রাহাত। ছবি: সংগৃহীত

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে এই ঘটনা ঘটে। এদিকে, বিষয়টি আয়োজক কর্তৃপক্ষ গোপন রাখায় শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে 

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে রেসিডেনসিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে কিশোর আলোর অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নবম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী মারা গেছে। তার নাম নাঈমুল আবরার।

শুক্রবার (১ নভেস্বর) বিকাল সাড়ে ৩টায় রেসিডেনসিয়াল মাঠে এই ঘটনা ঘটে।

এদিকে শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পরও বিষয়টি আয়োজক কর্তৃপক্ষ গোপন রাখায় এবং ঘটনার পর তাকে পাশের সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে না নিয়ে মহাখালীর আয়েশা মেমোরিয়ালে নেওয়ায় রেসিডেনসিয়ালের শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। তবে নিহত শিক্ষার্থীর পরিবারের কোনও অভিযোগ না থাকায় পুলিশ আবরারের লাশ তাদের কাছে হস্তান্তর করে।

অন্যদিকে, ঘটনার পর কিশোর আলোর সম্পাদক ও লেখক আনিসুল হক নিজের ফেসবুক একাউন্টে একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তার দেওয়া বিবৃতিটি হুবহু তুলে দেওয়া হলোঃ

“গভীর দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে কিশোর আলোর অনুষ্ঠান দেখতে এসে ঢাকা রেসিডেনসিয়াল কলেজের ক্লাস নাইনের ছাত্র নাইমুল আবরার বিদ্যুতায়িত হয়। ওখানেই জরুরি মেডিক্যাল ক্যাম্পে তাকে নেয়া হয়। দুজন এফসিপিএস ডাক্তার দেখেন। জরুরি ভিত্তিতে হাসপাতালে নিতে বলেন। হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আমার জীবনে এর চেয়ে মর্মান্তিক খবর আমি আর পাই নাই। আমি এখন হাসপাতালে আছি। প্রিন্সিপাল স্যার আছেন। নাইমুল আবরারের বাবা-মা এবং আত্মীয়রা আছেন।

আমি ও কিশোর আলো আজীবন আবরারের পরিবারের সঙ্গে থাকবো।

যদিও এই অপূরণীয় ক্ষতি কিছুতেই পূরণ হবে না। আমি কিংকর্তব্যবিমুঢ় অবস্থায় আছি। নাইমুল আবরারের জন্য দোয়া করছি।

আমি একটু সুস্থ হলে আপনাদের জানাব।”