• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

থানচিতে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি

  • প্রকাশিত ০৯:৪৩ রাত নভেম্বর ৯, ২০১৯
থানচি
বান্দরবানের থানচি উপজেলা।ঢাকা ট্রিবিউন

এই নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার পর শতাধিক পর্যটক থানচি ত্যাগ করেছেন 

ঘূর্ণিঝড় "বুলবুল"এর কারণে বান্দরবানের থানচি উপজেলার পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে ভ্রমণে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (৯ নভেম্বর) বিকেল থেকে আবহাওয়া স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পর্যটকদের জন্য এই নির্দেশনা জারি থাকবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রশাসনের এই নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার পর শতাধিক পর্যটক থানচি ত্যাগ করেছেন।

থানচি পর্যটন তথ্য কেন্দ্রের দায়িত্বরত কর্মকর্তা জয়নাল আবেদিন জানিয়েছেন, থানচি উপজেলার বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র-নাফাখুম, আমিয়াখুম, সাতভাই খুম, রেমাক্রি, বড়মদকসহ সাঙ্গু নদীতে পর্যটকবাহী ছোট-বড় নৌযান চলাচল ও ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

প্রশাসনে সূত্রে জানা যায়, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এবং আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিপজ্জনক বার্তা পাওয়ার পর প্রশাসনিকভাবে থানচি উপজেলার তিনটি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। তার মধ্যে থানচি বাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, বড় মদক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পানেডং পাড়া বৌদ্ধ বিহার আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা
যাবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ের সহকারী অফিস প্রধান তপন কান্তি দাশ জানান, আবহাওয়াজনিত কারণে ক্ষতি হতে পারে ধারণা করে পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে ভ্রমণেপ্রশাসন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।