• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৬ দুপুর

সিরাজগঞ্জে ট্রেন দুর্ঘটনা: রেলের ৪ কর্মচারীকে জিজ্ঞাসাবাদ

  • প্রকাশিত ১০:০২ সকাল নভেম্বর ১৫, ২০১৯
ট্রেন দুর্ঘটনা
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর একসপ্রেসের ৮টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। ঢাকা ট্রিবিউন

দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে পশ্চিমাঞ্চল রেল বিভাগ, রাজশাহীর মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ ও সহকারী মহাপরিচালক মিয়া জাহানসহ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উল্লাপাড়ায় গিয়েছেন বলে জানা গেছে

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বৃহস্পতিবার ট্রেন দুর্ঘটনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত স্টেশন মাস্টার ও লোকোমাস্টারের (চালক) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া হলেও ৪ খালাসি ও মিস্ত্রিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে জিআরপি থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) ভোরে তাদেরকে থানায় নেওয়া হয়। তাদের মধ্যে ৩ জনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন- খালাসি আরিফুল ইসলাম এবং মিস্ত্রি আব্দুর রাজ্জাক ও মকবুল হোসেন। 

ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিরাজগঞ্জ জিআরপি থানার ওসি হারুন মজুমদার ও পশ্চিমাঞ্চল রেল বিভাগ, পাকশীর বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন। 

এদিকে, দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে পশ্চিমাঞ্চল রেল বিভাগ, রাজশাহীর মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ ও সহকারী মহাপরিচালক মিয়া জাহানসহ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উল্লাপাড়ায় গিয়েছেন বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা-থেকে লালমণিরহাটগামী রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন সিরাজগঞ্জের সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া স্টেশনের এক নম্বর প্লাটফরম পার হয়ে আকস্মিক দুর্ঘটনায় পড়ে। ইঞ্জিন বাদে ৭টি বগি লাইনচ্যুত হয়। ইঞ্জিনটি হঠাৎ উপরের দিকে উঠে লাইন থেকে ছিটকে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে আগুন লেগে যায় ইঞ্জিনসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বগিতে। এরপর আরও ৩টি বগিতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। হুড়োহুড়ি করে নামতে গিয়ে ২৫ জন যাত্রী আহত হন।

এঘটনায় উত্তরাঞ্চলসহ খুলনা ও রাজশাহীর সঙ্গে রাজধানী ঢাকার ট্রেন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে প্রায় সাড়ে ছয়ঘণ্টা।