• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:০৬ বিকেল

জয়পুরহাটে গার্মেন্টসকর্মীকে গণধর্ষণ, সাবেক স্বামীসহ আটক ২

  • প্রকাশিত ১১:৫২ সকাল নভেম্বর ১৭, ২০১৯
গণধর্ষণ
প্রতীকী ছবি।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাতে তার সাবেক স্বামী ও এক সহযোগীকে আটক করে পুলিশ

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলায় এক গার্মেন্টসকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাতে তার সাবেক স্বামী ও এক সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা, ধর্ষণের শিকার নারীর সাবেক স্বামী একই উপজেলার কেশবপুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে মেহেরুল ইসলাম ও তার সহযোগী ভোজন চন্দ্র বর্মনের ছেলে গোপাল চন্দ্র বর্মন।

শনিবার সন্ধ্যায় স্থানীয়রা গুরুতর অসুস্থ তরুণীকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে। 

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনসুর রহমান জানান, একবছর আগে ধর্ষণের শিকার তরুণীকে ঢাকায় কর্মস্থলে পরিচয় থেকে বিয়ে করেন মেহেরুল। পরে তাকে গোপনে তালাক দিয়ে মেহেরুল পাঁচবিবিতে পালিয়ে আসে। এই অবস্থায় স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে চাপ সৃষ্টি করলে মেহেরুল তাকে পাঁচবিবি আসতে বলে। মেহেরুলের প্রস্তাব মেনে নিয়ে ঠিকানা অনুযায়ী শনিবার বিকেলে ওই তরুণী পাঁচবিবিতে এলে গ্রামে নেওয়ার কথা বলে স্থানীয় ছোট যমুনা নদীর নির্জন স্থানে দুই সহযোগীসহ গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায় মেহেরুল। পরে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে। 

খবর পেয়ে রাতে অভিযান চালিয়ে মেহেরুল ও তার এক সহযোগীকে পুলিশ আটক করে।