• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:০৭ সকাল

সারাদেশের সঙ্গে খুলনা বিভাগের বাস চলাচল বন্ধ

বাস
ঢাকা ট্রিবিউন

এদিকে হঠাৎ করেই বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন দূরপাল্লার হাজার হাজার যাত্রীরা

নতুন সড়ক আইন সংশোধনের দাবিতে খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন চালক ও শ্রমিকরা। 

সোমবার (১৮ নভেম্বর) সকাল ৯টা থেকে ধর্মঘট শুরু করে ১০ জেলার চালক ও শ্রমিকরা। এরআগে রবিবার (১৭ নভেম্বর)  যশোর থেকে শুরু হওয়া নতুন সড়ক আইন সংশোধনের দাবিতে কর্মবিরতিতে একাত্মতা ঘোষণা করেন শ্রমিকরা। ফলে আন্তঃজেলাগুলোর পাশাপাশি রাজধানী ঢাকার সঙ্গেও বন্ধ রয়েছে বাস চলাচল। 

যশোর কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, বাসগুলো সারিবদ্ধভাবে রেখে দেয়া হয়েছে। সাতক্ষীরার সকল রুটেও নতুন সড়ক পরিবহন আইন বাস্তবায়নের প্রতিবাদে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে শ্রমিকরা। 

এদিকে হঠাৎ করেই সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় দূরপাল্লার হাজার হাজার যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েছেন। তারা অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে নছিমন, করিমন ও ইজিবাইক যোগে গন্তব্যস্থলে পৌছানোর চেষ্টা করছেন।

ঝিনাইদহ থেকে যশোরগামী রবিউল ইসলাম নামের এক যাত্রী বলেন, “সকালে ভিসার আবেদন করার জন্য আমাকে যশোর যেতে হবে। সকাল থেকে প্রায় দুইঘণ্টা বসে আসি তবুও বাস পাচ্ছি না।”

এপ্রসঙ্গে বাংলাদেশ পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়েনের সেক্রেটারি জানান,  “রবিবার থেকে কর্মবিরতি শুরু হওয়ার পর যশোর থেকে ১৮টি রুটে বাস চলাচল বন্ধ ছিল। মূলত সড়কমন্ত্রী নতুন সড়ক আইন কার্যকরের ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে স্বেচ্ছায় কর্মবিরতি শুরু করেন চালক ও শ্রমিকরা। তাদের দাবি, নতুন আইনে যে শাস্তি ও জরিমানা নির্ধারণ করা হয়েছে- তা মেনে কাজ করা সম্ভব নয়। এজন্য যশোর থেকে শুরু হওয়া আন্দোলন খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে। চালক ও শ্রমিকদের দাবি, এই কালো আইন বাতিল না হওয়া পর্যন্ত বাস চলাচল বন্ধ থাকবে।”