• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৪ রাত

১০০ ফিটের ক্যানভাসে বঙ্গবন্ধু

  • প্রকাশিত ০৫:০৭ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ১, ২০১৯
বঙ্গবন্ধু, জীবন থেকে চিত্রপটে
'বঙ্গবন্ধু, জীবন থেকে চিত্রপটে' শীর্ষক আর্টক্যাম্পে কাজ করছেন চিত্রশিল্পীরা। ঢাকা ট্রিবিউন

'৬৯ থেকে '৭৫ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা দিক তুলে ধরেছেন দেশবরেণ্য ১০০ জন শিল্পী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ১০০ ফিট ক্যানভাসের উপর বিভিন্ন ছবির মাধ্যমে জাতির জনকের জীবন তুলে ধরেছেন দেশের ১শ' শিল্পী।          

রবিবার (১ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের পাবলিক প্লাজায় "বঙ্গবন্ধু, জীবন থেকে চিত্রপটে" শীর্ষক  এক আর্টক্যাম্পে "অসমাপ্ত আত্মজীবনী" ও "কারাগারের রোচনামচা" বই দুটি'র উপর ভিত্তি করে এসব শিল্পকর্ম তৈরি করেন শিল্পীরা। এসব শিল্পকর্মে '৬৯ থেকে '৭৫ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা দিক তুলে ধরা হয়।

চিত্রশিল্পী জামাল উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল মান্নান, জাহিদ মোস্তফা, আফরোজা জামিল কংকা, কীরিটী রঞ্জন বিশ্বাস, দুলাল চন্দ্র গাইন, নাসিম আহমেদ নাদভী, সনজিব দাস অপু, শহীদ কবির, নাজমা আক্তার, কামাল পাশা, আলম আনসারীসহ দেশের খ্যাতনামা ১শ’ চিত্র শিল্পী সকাল ৯ টা থেকে '৬৯ পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা দিক নিয়ে ছবি আঁকেন।

এর আগে রবিবার সকালে শিল্পকলা একাডেমির মহা-পরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর নেতৃত্বে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধের বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান শিল্পীরা। শিল্পীদের প্রধান সমন্বয়ক জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, "অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের রোচনামচা বই দু'টি অবলম্বনে ছবি এঁকেছি। এই ছবিগুলো আগামী বছর ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা শহরে প্রদর্শিত হবে। বঙ্গবন্ধু বইগুলো শেষ করে যেতে পারেননি। আমরা ছবির মাধ্যমে বই দু'টির পরিসমাপ্তি ঘটানোর চেষ্টা করেছি।"

'বঙ্গবন্ধু, জীবন থেকে চিত্রপটে' শীর্ষক আর্টক্যাম্পে কাজ করছেন চিত্রশিল্পীরা। ঢাকা ট্রিবিউন

গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, "জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে প্রাক-কাজের অংশ হিসেবে শিল্পকলা একাডেমী বঙ্গবন্ধুর বিশাল এই প্রতিকৃতি বানানোর উদ্যোগ নিয়েছে। শিল্পীরা বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম, আদর্শ, দর্শন ও ত্যাগ রং-তুলির মধ্য দিয়ে ফুঁটিয়ে তুলেছেন।"

শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "টুঙ্গিপাড়ায় দেশের বরেণ্য শিল্পীরা এসে বঙ্গবন্ধুর "অসমাপ্ত আত্মজীবনী" ও "কারাগারের রোচনামচা" নিয়ে ১শ’টি চিত্রকর্ম নির্মাণ করেছেন। বঙ্গবন্ধু বই দু’টিতে ১৯৬৮ পর্যন্ত শেষ করেছেন। বঙ্গবন্ধু যেখানে শেষ করেছেন, সেখান থেকে তার মৃত্যু পর্যন্ত সময়কালকে কয়েকটি পর্বে ভাগ করে শিল্পীরা ছবি এঁকেছেন।"

"বঙ্গবন্ধুকে শত কোটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার চেতনা নিয়েই আমরা কাজ করছি। ২০৪১ সালে বঙ্গবন্ধুর সোনারবাংলা বিনির্মাণ ও বঙ্গবন্ধুকে আন্তর্জাতিক  অঙ্গনে পৌছে দেয়াই আমাদের অন্যতম লক্ষ্য", যোগ করেন তিনি।