• বুধবার, এপ্রিল ০৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৭ রাত

পেশায় ফার্মাসিস্ট, ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখেন, প্রেসক্রিপশনও দেন!

  • প্রকাশিত ১০:৩৪ সকাল ডিসেম্বর ৪, ২০১৯
জামালপুর
মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) জামালপুর সদরের শ্রীপুর ইউনিয়নের ভালুকা বাজারে হাবিবুর রহমান চান নামের এক ভুয়া ডাক্তারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত সৌজন্যে

ডাক্তার পরিচয়ের সপক্ষে কোনও প্রমাণ দেখাতে না পারায় তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

জামালপুর সদরের শ্রীপুর ইউনিয়নের ভালুকা বাজারে হাবিবুর রহমান চান নামের এক ভুয়া ডাক্তারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। তার বিরুদ্ধে ফার্মাসিস্ট হয়েও ডাক্তার পরিচয়ে নিয়মিত রোগী দেখে ফি নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) দুপুর ৩ টার সময় জামালপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফরিদা ইয়াছমিন এ জরিমানা করেন। ডাক্তার পরিচয়ে ফি নিয়ে রোগী দেখার অভিযোগে ২০০৯ সালের ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয় বলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। 

র‌্যাবের পক্ষ থেকে প্রেস বিজ্ঞপ্তিটিতে বলা হয়েছে, নামের শেষে ফার্মাসিস্ট পদবি ব্যবহার করলেও হাবিবুর রহমান চান নিজেকে একজন ডাক্তার পরিচয় দিতেন। তার দোকানে বসেই নিয়মিত রোগী দেখে প্রেসক্রিপশন লিখতেন এবং ফি আদায় করতেন। মঙ্গলবার দুপুরে এলাকার ভুক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে সদর উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের ভালুকা বাজারের হাবিবুর রহমান চানের মুসলিম ফার্মেসি নামের ওষুধের দোকানে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

এসময় তাকে আটক করা হলে তার ডাক্তার পরিচয়ের স্বপক্ষে বৈধ কোনো প্রমাণ দেখাতে পারেননি তিনি বলেও ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।