• শনিবার, মার্চ ২৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৪ দুপুর

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান: ভাইকে পিটিয়ে বোনকে অপহরণ

  • প্রকাশিত ০৯:১৫ রাত ডিসেম্বর ৪, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি।

‘কয়েকজন আমাকে ইজিবাইকের ভেতরে তুলে হাত ও পা বেঁধে ফেলে এবং মুখে কাপড় পুরে দেয়। এ সময় আমার সঙ্গে থাকা বড় ভাই রুবেলকে জাপটে ধরে হাত, পা ও মুখ বেঁধে বেধড়ক মারপিট করে ফেলে রাখে’

নড়াইলের লোহাগড়ায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ভাইকে বেধড়ক পিটিয়ে বোনকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে লোহাগড়া উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের একটি গ্রামে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (০৩ ডিসেম্বর) বিকেলে উপজেলার দিঘলিয়া এলাকায় এ অপহরণের ঘটনা ঘটেছে।

অপহৃত শিক্ষার্থীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে তালবাড়িয়া গ্রামের জান্নাত (২২) নামের এক বখাটে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তার নেতৃত্বে একদল যুবক তার ভাইকে পিটিয়ে তাকে অপহরণ করে।

অপহরণের শিকার মেয়েটি জানায়, এইচএসসির নির্বাচনি পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার সময় দিঘলিয়া পেট্রোল পাম্পের পাশে চারটি মোটরসাইকেল ও একটি ইজিবাইক যোগে ১০-১২ জন যুবক আসে। কয়েকজন আমাকে ইজিবাইকের ভেতরে তুলে হাত ও পা বেঁধে ফেলে এবং মুখে কাপড় পুরে দেয়। এ সময় আমার সঙ্গে থাকা বড় ভাই রুবেলকে জাপটে ধরে হাত, পা ও মুখ বেঁধে বেধড়ক মারপিট করে ফেলে রাখে। এরপর আমাকে নিয়ে ইজিবাইক চালিয়ে পাশ্ববর্তী উলা গ্রামের দিকে রওনা হয়।

এ ব্যাপারে পুলিশের এসআই মিল্টন কুমার দেবদাস বলেন, “ঘটনার খবর পাওয়ার পর বিভিন্ন দিকে থানা-পুলিশ অভিযান চালায়। এর মধ্যে খবর পাই লক্ষীপাশা ইউপির উলা গ্রামে দুর্বৃত্তরা ঢুকেছে। সেখানে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করেছি। অপহরণকারীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। দ্রুতই তারা গ্রেপ্তার হবে।”