• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৩ সকাল

‘পুলিশ’ পরিচয়ে পুলিশের কাছ থেকে অর্থ হাতাতেন তিনি!

  • প্রকাশিত ০৭:০৪ রাত ডিসেম্বর ১৭, ২০১৯
বগুড়া পুলিশ প্রতারণা
ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে পুলিশ সদস্যদের কাছ থেকে অর্থ হাতানোর অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে বগুড়ার পুলিশ ঢাকা ট্রিবিউন

মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠিয়ে ৫ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে

পুলিশের “ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা” পরিচয়ে অনলাইনে অর্থ ট্রান্সফারের মাধ্যম ব্যবহার করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে সোহাগ মাহমুদ বাপ্পী ওরফে রনি (৩১) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে বগুড়া পুলিশের সাইবার ইউনিট।

রবিবার (১৬ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে তাকে ফরিদপুর জেলা সদরের রঘুনন্দনপুর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে জালিয়াতির কাজে ব্যবহৃত ৭টি মোবাইল ফোন ও ১১টি সিম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বগুড়া সাইবার পুলিশের পরিদর্শক এমরান মাহমুদ তুহিন ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, মাহমুদ বাপ্পী ওরফে রনির বাড়ি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ছোট পারুলিয়া গ্রামে। তিনি রঘুনন্দনপুর গ্রামে একটি ভাড়া বাড়িতে থাকেন। পুলিশ সদস্যদের নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে ভুয়া রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে সিম তুলে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন।

গত ২৮ অক্টোবর তিনি নিজেকে বগুড়া জেলার আলফা-১ (এসপি) পরিচয় দিয়ে পুলিশ লাইন্সের রিজার্ভ ইন্সপেক্টর (আরআই) জয়নাল আবেদীনকে ফোন করে থানার পাশের একটি হোটেলের সামনে একজন লোক পাঠাতে বলেন। তার কথা অনুযায়ী সেখানে রবিউল ইসলাম নামে এক কনস্টেবলকে পাঠান জয়নাল। কনস্টেবল রবিউল সেখানে গিয়ে রনি তাকে মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে

এক লাখ ৭৫ হাজার টাকা পাঠানোর জন্য বলেন। সে অনুযায়ী রবিউলও টাকা পাঠিয়ে দেন। পরে তারা প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পারেন।

এ ঘটনায় বগুড়া সদর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৩(২)/২৪(২)/৩০(২) ধারায় মামলা করেন কনস্টেবল রবিউল।

বগুড়া সাইবার পুলিশের ইন্সপেক্টর এমরান মাহমুদ তুহিন জানান, তার নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর প্রতারক সোহাগ মাহমুদ বাপ্পী ওরফে রনিকে সনাক্ত করেন। সোমবার রাতে তাকে ফরিদপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।

মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠিয়ে ৫ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।