• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:১১ দুপুর

কক্সবাজারে বেড়াতে গিয়ে তরুণীর রহস্যজনক মৃত্যু

  • প্রকাশিত ০৯:৩৯ রাত ডিসেম্বর ২২, ২০১৯
লাশ

ওই তরুণীর বন্ধুরা জানায়, অতিরিক্ত ইয়াবা সেবনে তার মৃত্যু হয়েছে 

বন্ধুদের সঙ্গে কক্সবাজারে বেড়াতে গিয়ে স্বর্ণা রশিদ নামের এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) রাতে শহরের হোটেল জামানের একটি কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থলে ইয়াবা ট্যাবলেট সেবনের আলামত ও তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।  

স্বর্ণা রাজধানীর বৃটিশ কাউন্সিলের "এ লেভেলের" শিক্ষার্থী ছিলেন বলে জানা গেছে। এঘটনায় ওয়ালী আহমদ খান নামের তার এক বন্ধুকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এবিষয়ে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী বলেন, "শুক্রবার সন্ধ্যার পর মেয়েটিকে জরুরি বিভাগে যখন আনা হয়, তখন আমি তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সিটে ভর্তি করে দিয়েছিলাম। কিন্তু সাথে থাকা বন্ধুরা ঢাকায় ফিরে যাওয়ার কথা বলে তাকে ভর্তি না করে ফিরিয়ে নিয়ে যান। তারা মেয়েটিকে নিয়ে যাওয়ার বেশ কিছুক্ষণ পর আবারও তাকে নিয়ে হাসপাতালে আসেন। তখন রাত আনুমানিক সাড়ে ৯টা। কিন্তু ততক্ষণে মেয়েটির মৃত্যু হয়।"“

স্বর্ণার বন্ধুদের বরাত দিয়ে চিকিৎসক শাহীন জানান, অতিরিক্ত পরিমাণে (ওভার ডোজ) ইয়াবা সেবন করায় ওই তরুণীর মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

এদিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের একজন চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, "নিহত ছাত্রীকে একাধিক ব্যক্তির দ্বারা ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট লেখার আগে তা বলা যাচ্ছে না। আপাতত ইয়াবার সেবনের বিষয়টির ওপর জোর দিচ্ছি আমরা।"  

স্বর্ণা তার মামার বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে বন্ধুদের সঙ্গে কক্সবাজারে যান বলে তার পারিবারের বরাত দিয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শরীফ উল্লাহ জানিয়েছেন। 

এদিকে স্বর্ণার মৃত্যুর খবর পেয়ে শনিবার (২১ ডিসেম্বর) সকালে পরিবারের সদস্যরা কক্সবাজারে ছুটে যান। ময়নাতদন্ত শেষে গতকালই লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। 

কক্সবাজার সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. খায়েরুজ্জামান বলেন, "ধর্ষণের বিষয়টি আমি নিশ্চিত নই। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার পর তা পরিষ্কার হবে। এর আগে এবিষয়ে মন্তব্য করা যাচ্ছে না।"

তিনি আরও বলেন, “হোটেলে ইয়াবা সেবনের তথ্য পাওয়া গেছে। এ ইয়াবার সরবরাহ কোথা থেকে হলো তা অনুসন্ধান করা হচ্ছে। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” 

তরুণীর মৃত্যুর খবর শুনে তার কয়েক বন্ধু পালিয়ে গেলেও একজনকে আটক করেছে পুলিশ। তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।