• শনিবার, মার্চ ২৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৪ দুপুর

সুন্দি কাছিম বেচতে গিয়ে গ্রেফতার ২ পাচারকারী

  • প্রকাশিত ০৮:০৬ রাত ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯
কাছিম-সাতক্ষীরা
উদ্ধারকৃত সুন্দি কাছিম। ইউএনবি

‘দুই থেকে তিন দশক আগেও দেশের নদী, খাল, বিল, হাওর ইত্যাদি জলাশয়ে প্রচুর সুন্দি কাছিম দেখা যেত, তবে বাসস্থান ধ্বংস ও ক্রমাগত শিকারের কারণে এই জলজ প্রাণীটি হারিয়ে যেতে বসেছে’

সাতক্ষীরা পাটকেলঘাটা থেকে ৩৪টি কচ্ছপসহ দুই পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল ৮টার দিকে পাটকেলঘাটার থানার দলুয়া বাজার এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন- দলুয়া বাজার এলাকার দুখুড়িয়া গ্রামের হাজরাপদ সরকার (৩৮) ও গাছা গ্রামের উত্তম মল্লিক (৩৫)।

দলুয়া বাজারের বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সেলিম জানান, দীর্ঘদিন ধরে প্রশান্ত সরকার ও উত্তম মহলদার বাজারে কচ্ছপ বিক্রির ব্যবসা করে আসছিল। সোমবার সকালে কচ্ছপ বিক্রিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুই বস্তায় থাকা উক্ত কচ্ছপসহ দুইজনকে হাতে নাতে আটক করে র‌্যাব-৬ সাতক্ষীরা ক্যাম্পের সদস্যরা।

র‌্যাব-৬ এর সাতক্ষীরার কোম্পানি অধিনায়ক মো. শাহিনুর ইসলাম জানান, বিক্রির উদ্দেশে দুটি বস্তায় ৩৪টি কচ্ছপ নিয়ে বাজারে আসলে দুই পাচারকারীকে আটক করে র‌্যাব সদস্যরা।

তিনি বলেন, “তাদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে মামলা করা হয়েছে।”


আরও পড়ুন - রাস্তার পাশে পড়ে ছিল বাঘডাশটির মৃতদেহ


এদিকে পরিচয় নিশ্চিত ঢাকা ট্রিবিউনের পক্ষ থেকে কাছিমের ছবি পাঠানো হয় বাংলাদেশ বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা জোহরা মিলার কাছে। তিনি এই প্রজাতির কাছিমকে “সুন্দি কাছিম (Indian flapshell turtle)” বলে চিহ্নিত করেন।

তিনি বলেন, “এটি স্থানীয়ভাবে ‘চিতি কাছিম’ নামেও পরিচিত। দুই থেকে তিন দশক আগেও দেশের নদী, খাল, বিল, হাওর ইত্যাদি জলাশয়ে প্রচুর সুন্দি কাছিম দেখা যেত, তবে বাসস্থান ধ্বংস ও ক্রমাগত শিকারের কারণে এই জলজ প্রাণীটি হারিয়ে যেতে বসেছে।”

তিনি বলেন, “আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘের (আইইউসিএন) রেড লিস্ট গ্রন্থে সুন্দি কাছিমকে কম উদ্বেগের (least concern) তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। প্রাণীটি বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন-২০১২ এর তফসিল-২ অনুযায়ী সংরক্ষিত। তাই সুন্দি কাছিম হত্যা বা এর ক্ষতিসাধন শাস্তিযোগ্য অপরাধ।”


আরও পড়ুন - আড্ডা ফেলে আহত পেঁচাটিকে বাঁচালেন তারা