• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৪ দুপুর

উৎপাদন হয় ইরি ধান, আমন কিনতে কৃষি বিভাগের লটারি!

  • প্রকাশিত ০৫:৫৪ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯
নাটোর
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন মিজানুর রহমান মিজান। ঢাকা ট্রিবিউন

চলতি মৌসুমে দেশে ১ কোটি ৫৩ লাখ টন আমন ধান উৎপাদিত হয়েছে অথচ সরকার কিনছে মাত্র ৬ লাখ টন

এক ফসলি এলাকায় (যে অঞ্চলে শুধু ইরি ধান রোপণ করা হয়) আমন ধান কিনতে লটারি করে সরকার কৃষকদের সাথে তামাশা করছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় কৃষক সমিতির নাটোর জেলা সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান।

বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুরে নাটোর শহরের সাহারা প্লাজায় রাজশাহী বিভাগীয় কৃষক-ক্ষেতমজুর সমাবেশ উপলক্ষে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এই কথা বলেন।

চলতি মৌসুমে দেশে ১ কোটি ৫৩ লাখ টন আমন ধান উৎপাদিত হয়েছে অথচ সরকার কিনছে মাত্র ৬ লাখ টন জানিয়ে তিনি বলেন, কৃষকদের কাছ থেকে কমপক্ষে ২০ লাখ টন আমন ধান কিনতে হবে। এ ছাড়া আগামী ইরি মৌসুমে ৪০ লাখ টন কিনতে সরকারে প্রতি আহ্বানও জানান তিনি।

বিদ্যুৎ এ ডিমান্ড ও মিনিমাম চার্জ কমানোর দাবি করে মিজানুর রহমান বলেন, বিদ্যুৎ বিভাগ ভুয়া বিল ও গড় বিল তৈরি করে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির মতো আচরণ করছে। যার কারণে লুট হচ্ছে কৃষকসহ দেশের মানুষের টাকা।

এ সময় ৬০ বছরের উর্ধ্বে সকল ক্ষেতমজুর, ভূমিহীন, ও শ্রমজীবী মানুষের জন্য এককালীন পেনশন ও মাসিক ভাতার ব্যবস্থা করা, উপজেলা খাদ্যশস্য ক্রয় কমিটিতে কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগঠনের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা, উপজেলায় প্যাডি সাইলো (ধান সংরক্ষণের একপ্রকার গুদাম) নির্মাণ করা এবং পরিচালনা ভার এলাকার গ্রোওয়ার্স কো-অপারেটিভের ওপর ন্যস্ত করাসহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া পূরণ এ পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানান মিজানুর রহমান।

জাতীয় কৃষক সমিতি ও বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের আয়োজনে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনোয়ারুল হক বাবলু, বগুড়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, বগুড়া জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম, বগুড়া জেলা ক্ষেতমজুর কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এবং পাবনা জেলার কৃষক নেতা ফারুক হোসেন।

উল্লেখ্য, আগামী ৩০ ডিসেম্বর দুপুর ২টায় নাটোরের কানাইখালি পুরাতন বাস স্ট্যান্ড এলাকায় অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ফজলে হোসেন বাদশা।