• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৪ দুপুর

শুক্রবার থেকে শীতের তীব্রতা আবারও বাড়তে পারে

  • প্রকাশিত ১০:৩০ রাত ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯
শীত-রাজশাহী
বছরের শুরুতেই হঠাৎ জেঁকে বসা শীত জনজীবনে প্রচণ্ড দুর্ভোগ নিয়ে আসে। ঢাকা ট্রিবিউন

বৃহস্পতিবার সারাদেশে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকবে এবং গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে

আগামী শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) থেকে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ ড. আব্দুল মান্নান। ফলে এ সময় আবারও শীতের তীব্রতা বাড়বে বলে মনে করছেন তিনি।

ড. মান্নান বলেন, “বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) সারাদেশে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকবে এবং গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তখন রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা হ্রাস পেতে পারে।”

তিনি জানান, দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। মৌসুমের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৬ দশমিক ২ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

দেশের উত্তর-দক্ষিণাঞ্চলসহ সারাদেশে গত সপ্তাহের শেষ দিকে শীতের দাপট ছিল। দক্ষিণাঞ্চলের জেলা ফরিদপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, বরিশাল, খুলনা ও যশোর এবং উত্তরের জেলা চুয়াডাঙ্গা, ও রাজশাহীতে তীব্র শীতের বেশ প্রভাব ছিল। ওই অঞ্চলে মৌসুমের প্রথম মৃদু শৈত্য প্রবাহ বয়ে গেছে। গত রবিবার (২২ ডিসেম্বর) থেকে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, বুধবার দেশের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দিনাজপুরে ৬ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বদলগাছিতে ৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ডিমলায় ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রাজারহাটে ৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, তাড়াশে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবার ঢাকায় সর্বনিন্ম তাপমাত্রা ছিল ১৩ ডিগ্রিসেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯৯ শতাংশ।

২৬ ডিসেম্বর সকাল ৯টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, সারাদেশে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। আগামী ২৪ ঘন্টায় আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।