• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ সকাল

পঞ্চগড়ে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস

  • প্রকাশিত ১১:১৭ সকাল ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯
কুয়াশাচ্ছন্ন শীতের সকাল
ফাইল ছবি। সৈয়দ জাকির হোসেন/ ঢাকা ট্রিবিউন

গত বছরের ৮ জানুয়ারি পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছিল, যা বাংলাদেশের ইতিহাসে রেকর্ড করা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকালে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগে বুধবার তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছিল। গত বছরের ৮ জানুয়ারি তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছিল, যা বাংলাদেশের ইতিহাসে রেকর্ড করা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের ঢাকা অফিসের আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বলেন "এখন পর্যন্ত এটি এ বছরের রেকর্ড করা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।"

"পঞ্চগড়বাসীর জন্য আপাতত কোন ভালো খবর নেই। আগামী কয়েকদিন তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে," যোগ করেন আবহাওয়াবিদ আরিফ।

এদিকে শীতার্ত প্রান্তিক গোষ্ঠীর জনগণের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রায় ৩৫ হাজার শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। এর পাশাপাশি বিজিবিসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো সাধ্যমত শীতবস্ত্র বিতরণ করছে। কিন্তু তা এ জেলার বিশাল শীতার্ত দরিদ্র মানুষের তুলনায় অনেক কম। এছাড়া অনেক এলাকাতেই দরিদ্র শীতার্তদের মাঝে এখনো শীতবস্ত্র পৌঁছেনি।

পাশাপাশি জেলার হাসপাতালগুলোতে শীত ও শীতজনিত কারণে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। বুধবার সরকার প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, গত ১ নভেম্বর থেকে ২৪ ডিসেম্বরের মধ্যে পঞ্চগড়ে ২ হাজার ২৭৪ জন মানুষ শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এ সময়ে পঞ্চগড়ে শীতজনিত রোগে কমপক্ষে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যায়।