• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৫৩ দুপুর

পুরোনো আদলে ফিরছে বঙ্গবন্ধুর আদি পৈতৃক বাড়ি

  • প্রকাশিত ০২:৩৫ দুপুর ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯
বঙ্গবন্ধুর আদি পৈতৃক বাড়ি
গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর আদি পৈতৃক বাড়ি। ঢাকা ট্রিবিউন

প্রায় সাড়ে ৩০০ বছর আগে বঙ্গবন্ধুর পিতৃপুরুষ জমিদার  শেখ কুদরতউল্লা আধুনিক স্থাপত্যের আদলে টুঙ্গিপাড়া গ্রামে এ বাড়িটি নির্মাণ করেন

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর আদি পৈতৃক বাড়ি পুরোনো আদলে ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু হয়েছে। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর প্রায় এক মাস আগে এ কাজ শুরু করেছে। 

সরেজমিনে দেখা গেছে, বাড়িটির দেয়াল থেকে পলেস্তারা সরিয়ে ফেলা হয়েছে। সেখানে চুন-সুরকির সংমিশ্রণে পুরানো আদলে সংস্কার করা হচ্ছে। পাশাপাশি সিমেন্ট বালু দিয়ে নতুন করে পুরনো আদলে পলেস্তারা করা হচ্ছে।

প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের ডেপুটি ডাইরেক্টর আমিরুজ্জামান পলাশ ও সহকারী প্রকৌশলী ফিরোজ আহমেদ কাজটি তত্ত্ববধান করছেন।

সহকারী প্রকৌশলী ফিরোজ আহমেদ বলেন, "প্রায় আট বছর আগে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এ বাড়িটি সংস্কার করে। এতে বাড়িটির পুরোনো আদলে বেশ পরিবর্তন আসে। পরে বাড়িটি পুরনো আদলে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়।" 

"এরপর প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের প্রকৌশলীরা টুঙ্গিপাড়া এসে এ বাড়ির পুরোনো ছবি ও ভবনের নির্মাণশৈলী দেখে পুরনো আদলে ফিরিয়ে দিতে একাধিক নকশা প্রণয়ন করেন।  এগুলো পাওয়ারপয়েন্টের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রদর্শন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ওই নকশার আদলে বাড়িটি সংস্কার করার অনুমতি প্রদান করেন। সে মোতাবেক বাড়িটি পুরোনো আদলে ফিরিয়ে আনার নমুনা কাজ চলছে। এটির নমুনা  আবার প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করা হবে। তিনি বাড়িটির সংস্কারের নমুনা দেখে অনুমোদন দিলেই চূড়ান্ত কাজ করা হবে।"

বঙ্গবন্ধুর আদি পৈতৃক বাড়ি। ঢাকা ট্রিবিউন

টুঙ্গিপাড়ার শেখ বাড়ির শেখ বোরহান উদ্দিন জানান, "প্রায় সাড়ে ৩০০ বছর আগে বঙ্গবন্ধুর পিতৃপুরুষ জমিদার  শেখ কুদরতউল্লা আধুনিক স্থাপত্যের আদলে টুঙ্গিপাড়া গ্রামে এ বাড়িটি নির্মাণ করেন। এ বাড়ি তখন এ অঞ্চলের মধ্যে অনন্য সাধারণ স্থাপত্য শিল্প হিসেবে পরিগণিত হয়েছিলো। এ অঞ্চলে আগত মানুষ বাড়িটির নির্মাণশৈলী দেখে মুগ্ধ হতেন।" 

"জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশব থেকে শুরু করে জীবনের অনেক স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে এই বাড়ির সাথে। দীর্ঘ যুগ বাড়িটি জরাজীর্ণ অবস্থায় পড়ে ছিলো। শেখ হাসিনা ২০০৯ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করার পর বাড়িটি সংস্কার করেন। প্রথম দফা সংস্কারে বাড়িটি পুরোনো আদলের অনেক পরিবর্তন ঘটে। তাই বাড়িটি পুরনো আদলে ফিরিয়ে দিতে ফের সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। টুঙ্গিপাড়া গ্রামের সম্ভ্রান্ত শেখ পরিবারের  ঐতিহ্যবাহী এ বাড়িটি দেখতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষ এখানে আসেন। বাড়িটি ঘুরে ঘুরে দেখেন। শেখ পরিবারের ইতিহাস-ঐতিহ্য সম্পর্কে জানতে পারেন। বাড়িটি পুরোনো আদলে ফিরে আসলে আরো আকর্ষণীয় ও দর্শণীয় হবে।" 

দর্শনার্থী বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার হিজলী গ্রামের রহমত আলী বলেন, "বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি ও আমাদের জাতির পিতা। তিনি টুঙ্গিপাড়ার সম্ভ্রান্ত শেখ পরিবারে জম্মগ্রহণ করেন। তার পরিবারের একটি স্বর্ণালী ইতিহাস ও ঐতিহ্য রয়েছে। তার পুরোনো পৈতৃক বাড়ি এর সাক্ষ্য বহন করে চলেছে সাড়ে তিন শতাব্দী ধরে। এটি সংস্কার করে পুরোনো আদলে ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু হয়েছে। আশাকরছি বঙ্গবন্ধুর জম্মশত বর্ষে এটির কাজ শেষ হবে।"