• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৬ দুপুর

৬৪ জেলার মানুষকে প্লাস্টিক ব্যবহারে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে এলেন বাবর

  • প্রকাশিত ০৬:৫০ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ২৭, ২০১৯
বাবর আলী
প্লাস্টিক ব্যবহারে সচেতনতা বাড়াতে হেঁটে ৬৪ জেলা ভ্রমণে বাবর আলী সৌজন্য

‘প্রচারণা শেষ করেছি, এর মানে এই নয় যে এখানেই থেমে যাবো। আমার পরিসর ছোট হতে পারে। কিন্তু স্বপ্ন অনেক বড়’


শুরু করেছিলেন অক্টোবরের ২৫ তারিখে ঠাকুরগাঁও থেকে। প্রতিদিন ভোর সাড়ে ৬টা বা ৭ টা থেকে হাঁটা শুরু করে সন্ধ্যা নাগাদ থামতেন তিনি। দু'মাস পরে শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) কক্সবাজারে গিয়ে শেষ হলো প্লাস্টিক ব্যবহারে ৬৪ জেলার মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য চিকিৎসক বাবর আলীর ক্যাম্পেইন।

কক্সবাজার শহরে তাকে উষ্ণ অভর্থ্যনা জানান স্থানীয় যুবকরা।

যাত্রা সময়ের প্রতিটি দিনেও বিচিত্র অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছেন তিনি। তার উদ্দেশ্য ছিল এই ভ্রমণের মাধ্যমে যাত্রাপথের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বাজারগুলোতে গিয়ে স্থানীয় জনগণকে “সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিকের” ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে বোঝানোর চেষ্টা করা।

এ বিষয়ে বাবর বলেন, “প্রচারণা চালাতে গিয়ে অনেকের আগ্রহ ও ইতোবাচক মনোভাব আমাকে অভিভূত করেছে। বেশিরভাগ মানুষই প্লাস্টিকের ক্ষতিকর দিক বিবেচনা কথা দিয়েছেন যতটা সম্ভবত কম প্লাস্টিক ব্যবহার করবেন।”

 বেশিরভাগ এলাকাতেই উষ্ণ অভর্থ্যনা পেয়েছেন বাবার আলী। সৌজন্য

প্রচারণা তো শেষ করলেন, এখন পরিকল্পনা কী, এমন প্রশ্নের জবাবে বাবর আলী বলেন, “আপাতত প্রচারণা শেষ করেছি, এর মানে এই নয় যে এখানেই থেমে যাবো। এটি নিয়ে আমারও আরও পরিকল্পনা রয়েছে। আমার পরিসর ছোট হতে পারে। কিন্তু স্বপ্ন অনেক বড়।”  

প্রতিরাতে বাবর থেকেছেন কোনো আত্মীয়-বন্ধু বা পূর্ব পরিচিতদের বাড়িতে। ওইসব বাড়ির লোকজনকেও প্লাস্টিকের ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন করে তোলার চেষ্টা করেছেন তিনি।

পরিবেশ সচেতন মানুষটি মনে করেন, একদিনে পরিবর্তন বা মানুষকে প্লাস্টিকের ব্যবহার থেকে পুরোপুরি ফিরিয়ে আনা সম্ভব না হলেও ধীরে ধীরে সচেতনতা তৈরি করা সম্ভব।


আরও পড়ুন - প্লাস্টিক ব্যবহারে সচেতনতা বাড়াতে হেঁটে ৬৪ জেলা ভ্রমণ