• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০২ সকাল

মাদ্রাসার জানালা দিয়ে দড়ি বেয়ে পালানোর সময় কিশোরের মৃত্যু

  • প্রকাশিত ০৫:০৪ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯
শিশু মৃত্যু
প্রতীকী ছবি।

ওই কিশোর ও তার এক সহপাঠী গভীর রাতে মাদ্রাসার চতুর্থ তলার একটি কক্ষের জানালায় দড়ি বেঁধে নিচে নামার চেষ্টাকালে পড়ে গিয়ে মারাত্মক জখম হয়

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় একটি মাদ্রাসার চারতলা ভবনের জানালা দিয়ে দড়ি বেয়ে নেমে পালানোর সময় পড়ে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে জহিরুল ইসলাম সাজিদ (১৩) নামে এক কিশোর শিক্ষার্থী। এ দুর্ঘটনায় সাইফুল ইসলাম (১৬) নামে আরেক ছাত্রকে আশংকাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার কেশারপাড় ইউনিয়নের কানকিরহাট ইসলামিয়া ও ফাতেমাতুজ্জোহরা মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জহিরুল ইসলাম সাজিদ সেনবাগ পৌরসভার অষ্টাদ্রোন গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে এবং আহত সাইফুল ইসলাম ডুমুরিয়া ইউনিয়নের জোড়তুলা গ্রামের শাহ আলমের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সেনবাগ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আলমগীর হোসেন ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, গভীর রাতে মাদ্রাসার চতুর্থ তলার একটি কক্ষের জানালায় দড়ি বেঁধে নিচে নামার চেষ্টাকালে পড়ে গিয়ে মারাত্মক জখম হয় জহিরুল ও সাইফুল। উদ্ধার করে তাদেরকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাজিদকে মৃত ঘোষণা করেন এবং সাইফুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তিনি আরও জানান, নিহত ছাত্রের সুরতহাল রিপোর্ট শেষ হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ মামলা করেনি।