• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৪ রাত

ইংরেজি নববর্ষের প্রথম দিনে দেশে জন্ম নেবে ৮ হাজার শিশু

  • প্রকাশিত ০৬:২৯ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯
শিশু
প্রতীকী ছবি/পিক্সাবে

প্রতিটি নবজাতককে বাঁচাতে স্বাস্থ্য কর্মীদের প্রশিক্ষণ এবং যথাযথ ওষুধ ও সরঞ্জাম দিয়ে তাদের সহায়তার জন্য বিনিয়োগ করতে ইউনিসেফ বিশ্বনেতা ও দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে

২০২০ সালের প্রথম দিনে বাংলাদেশে আনুমানিক ৮ হাজার ৯৩টি শিশু জন্ম নেবে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ। আর এদিন বিশ্বজুড়ে জন্ম নেবে আনুমানিক ৩ লাখ ৯২ হাজার ৭৮টি শিশু। যার মধ্যে ২ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ শিশুর জন্ম হবে বাংলাদেশে। 

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) এক গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে ইউনিসেফ।

এ বিষয়ে সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা ফোর বলেন, “নতুন একটি বছর এবং নতুন একটি দশকের সূচনা কেবল আমাদের ভবিষ্যতের জন্য নয়, আমাদের পরে যারা আসবে তাদের ভবিষ্যতের প্রতি আমাদের আশা ও আকাঙ্খাগুলো প্রতিফলিত করার সুযোগ। প্রতি জানুয়ারিতে ক্যালেন্ডারের বদলে যাওয়া আমাদের প্রতিটি শিশুর জীবনের যাত্রা শুরুর বিষয়ে সব ধরনের সম্ভাব্যতা ও সম্ভাবনার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।”

২০২০ সালের প্রথম শিশুটির জন্ম হতে পারে প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশ ফিজিতে। আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হবে শেষ শিশুটির জন্ম। বিশ্বব্যাপী জন্মগ্রহণ করা শিশুদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি শিশুর জন্ম হবে আটটি দেশে। তারা হলো-

১.  ভারত - ৬৭,৩৮৫

২.  চীন - ৪৬,২৯৯

৩.  নাইজেরিয়া - ২৬,০৩৯

৪.  পাকিস্তান - ১৬,৭৮৭

৫.  ইন্দোনেশিয়া - ১৩,০২০

৬.  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র - ১০,৪৫২

৭.  গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গো - ১০,২৪৭

৮.  ইথিওপিয়া - ৮,৪৯৩

প্রতিটি নববর্ষের দিনে ইউনিসেফ শিশুদের জন্ম উদযাপন করে আসছে।