• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৬ সকাল

রোজার আগে আসছে ২ লাখ টন পেঁয়াজ

  • প্রকাশিত ০৬:৩৮ সন্ধ্যা জানুয়ারী ২, ২০২০
পেঁয়াজ

টিপু মুনশি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেন, 'ন্যায়সঙ্গত মুনাফা করে ব্যবসা করেন'

আগামী রমজান মাসের প্রয়োজনীয় চাহিদা মেটাতে দুই লাখ টন পেঁয়াজ আমদানি করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

মন্ত্রী বলেন, "টিসিবি, সিটি গ্রুপ, মেঘনা গ্রুপ এবং এস আলম গ্রুপ প্রত্যেকে ৫০ হাজার মেট্রিক টন করে পেঁয়াজ আমদানি করবে। রমজান শুরুর আগেই এগুলো আমদানি করা হবে। এর পাশাপাশি ভোজ্য তেল, ছোলা, আদা, রসুন, খেজুরসহ সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের চাহিদা,উৎপাদন ও আমদানি পর্যালোচনা করে প্রয়োজনীয় মজুত করা হবে।" 

বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন মন্ত্রী। 

টিপু মুনশি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেন, "আপনাদের দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে। ন্যায়সঙ্গত মুনাফা করে ব্যবসা করেন। সরকার ব্যবসায়ীদের প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতা দিবে।"

"বিগত দিনের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে আগামী দিনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। রমজানে যেন কোনো পণ্যের ঘাটতি না হয়, সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সেবার মনোভাব নিয়ে ব্যবসা করলে ব্যবসায়ী ও ভোক্তা উভয়েই উপকৃত হবেন।" 

সভায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ বলেন, "নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের স্বাভাবিক সরবরাহ ও ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে। দেশে যাতে কোনো পণ্যের সংকট না হয় বা অযৌক্তির মূল্য বৃদ্ধি না হয়, সেজন্য সরকার সজাগ আছে।" 

তিনি আরও বলেন, এবারে পেঁয়াজ নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে সমস্যা তৈরি হয়েছে। সরকার জরুরি পদক্ষেপ নিয়ে দেশের বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে মিশর ও তুরষ্ক থেকে পেঁয়াজ আমদানি করিয়েছে। দেশেই যাতে প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ উৎপাদন করা যায় সেজন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। 

সভায় অন্যদের মধ্যে বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারপারসন মো. মফিজুল ইসলাম, ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান তপন কান্তি ঘোষ, টিসিবির চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. হাসান জাহাঙ্গীর, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা, মেঘনা গ্রুপের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, বাংলাদেশ পাইকারী ভৌজ্য তেল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. গোলাম মাওলাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানিকারক, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বাংলাদেশ ব্যাংক, কৃষি মন্ত্রনালয়, এফবিসিসিআই ও অন্যান্য ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।