• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:০৮ সকাল

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় কিশোরীর মাথা ন্যাড়া, মা গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ১০:০৮ রাত জানুয়ারী ৪, ২০২০
গ্রেফতার
প্রতীকী ছবি

ওই কিশোরীর বাবা ও মা দুই বছর আগে তাকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে দেন

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় দ্বিতীয় বিয়েতে রাজি না হওয়ায় নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৭) মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় ওই কিশোরীর মা ও ফুফুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বুধবার (১ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার খোট্টাপাড়া গ্রামের ঘটনাটি ঘটে। শনিবার (৪ জানুয়ারি) বিকেলে শাজাহানপুর থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা করে ওই কিশোরী। 

শাজাহানপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিমউদ্দিন এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্র জানায়, ওই কিশোরীর বাবা ও মা দুই বছর আগে তাকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে দেন। কিন্তু সে বিয়ে অস্বীকার করে। এতে বাবা-মা ক্ষিপ্ত হওয়ায় সে পার্শ্ববর্তী মাদলা গ্রামে ফুফুর বাড়িতে আশ্রয় নেয় এবং স্থানীয় স্কুলে নবম শ্রেণিতে লেখাপড়া করতে থাকে। 

পরে গত ৩১ ডিসেম্বর আবারও বিয়ে দিতে জোর করে ফুফুর বাড়ি থেকে মেয়েকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যান ওই কিশোরীর মা। এবারও বিয়েতে রাজি না হওয়ায় তাকে মারধর করে শিকল দিয়ে খাটের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। এর এক পর্যায়ে তার মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া হয়। 

এদিকে ওই কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন, সে বিপথগামী হয়ে পড়ে। মান-সম্মান বাঁচাতে বাবা-মা তাকে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। তবে সে রাজি না হওয়ায়, বাড়িতে আটকে রাখতে ন্যাড়া করে দেওয়া হয়। 

শাজাহানপুর থানার পরিধর্শক আবুল কালাম আজাদ জানান, নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী শনিবার থানায় এসে মাসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। পরে তার মা ও ফুফুকে গ্রেফতার করা হয়েছে।