• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৪ দুপুর

বাড়ি ভাড়া দিতে না পারায় নারী শ্রমিককে গণধর্ষণ

  • প্রকাশিত ১০:০৮ রাত জানুয়ারী ১৫, ২০২০
যৌন হেনস্থা
প্রতীকী ছবি

স্বামীকে আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করা হয় বলে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন তিনি

ঢাকার আশুলিয়ায় বাড়ি ভাড়ার টাকা দিতে না পারায় স্বামীকে আটকে রেখে এক নারী শ্রমিককে (২৪) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বাড়িওয়ালা ও তার সঙ্গীদের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) রাতে আশুলিয়ার উত্তর গাজিরচট এলাকার একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

বুধবার দুপুরে আশুলিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই নারী। তিনি ডিইপিজেডের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। অভিযোগের পরপরই অভিযুক্ত বাড়িওয়ালাকে আটক করেছে পুলিশ।

ওই নারী শ্রমিক ও পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, স্বামীর সঙ্গে আশুলিয়ার উত্তর গাজীরচট এলাকায় কালাম নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে ভাড়া থেকে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে ৪-৫ জন লোককে সঙ্গে নিয়ে ঘরে ঢুকে চলতিমাসের পুরো ভাড়া দাবি করেন বাড়ি মালিক। যদিও তিনি চলতি মাসের ভাড়া বাবদ একহাজার টাকা পরিশোধ করে দিয়েছেন। বেতন না পাওয়ায় বাকি দুইহাজার টাকা দিতে দেরি হচ্ছিল।


আরও পড়ুন - টাকা শোধ করতে না পেরে মেয়েকে ধর্ষণের অনুমতি দিলো বাবা


অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, বাড়ি মালিক ভাড়ার অর্থের বদলে তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ও কানের দুল খুলে দিতে বলেন। এতে অপরাগতা জানালে বাড়ি মালিক ও তার সঙ্গীরা ওই নারীর স্বামীকে অন্য একটি কক্ষে আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করেন।

আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) জাবেদ মাসুদ বলেন, ওই নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে বাড়িওয়ালাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত ব্যক্তি স্বর্ণালংকার খুলে নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করলেও ধর্ষণের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

এই ঘটনায় মামলা দায়ের ও ওই নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।