• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৬ সকাল

মেঘনায় দুই লঞ্চের সংঘর্ষে আহত ৮

  • প্রকাশিত ০২:২৮ দুপুর জানুয়ারী ১৭, ২০২০
চাঁদপুর লঞ্চ
চাঁদপুরের লঞ্চ দুর্ঘটনায় আহত শিশু ঢাকা ট্রিবিউন

লঞ্চ দুটিকে ঘাটে ভেড়ানোর অনুরোধ করা হলেও তারা সাড়া না দিয়ে গন্তব্যের দিকে চলে যায়

চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে দু'টি যাত্রীবাহী লঞ্চের সংঘর্ষে ৮ যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে মেঘনা নদীর আলুর বাজার এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলো- বরিশালের হিজলা উপজেলার মহিউদ্দিন (১০), ফয়জুল (১২), মাসুম (২৬), রাসেল (১৫), মো. তারেক (১১), আবু তাহের (২৫)। বাকি দু'জনের নাম জানা যায়নি।

আহত যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, চাঁদপুর থেকে ছেড়ে পিরোজপুরের হুলারহাটের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া এমভি টিপু-১২ লঞ্চটি আলুর বাজার এলাকা অতিক্রমকালে বরিশাল থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া এমভি আওলাদ-৪ লঞ্চকে ধাক্কা দেয়। এতে এমভি আওলাদের ৮ যাত্রী আহত হন। সংঘর্ষে আওলাদ লঞ্চের সামনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এমভি আওলাদ-৪ লঞ্চের চাঁদপুর ঘাট সুপারভাইজার রুহুল আমিন বলেন, সংঘর্ষে আমাদের লঞ্চের সামনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আহত যাত্রীদের ট্রলারে করে চাঁদপুরে নিয়ে আসা হয়েছে।

চাঁদপুর নৌ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইলিয়াস জানান, দুর্ঘটনার খবর তারা ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের নিয়ে চাঁদপুর লঞ্চঘাটে যান। এ সময় লঞ্চ দুটিকে ঘাটে ভেড়ানোর অনুরোধ করা হলেও তারা সাড়া না দিয়ে গন্তব্যের দিকে চলে যায়। দুর্ঘটনার বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাঁদপুর ২৫০ শয্যার সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. আসিবুল আহসান আসিব বলেন, দুই লঞ্চের সংঘর্ষে আহত যাত্রীদের ৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় আমরা তাকে ঢাকায় পাঠিয়েছি। বাকিরা শংকামুক্ত।