• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪০ রাত

শেখ হাসিনা: মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের দেশে ফেরানোর পরিবেশ তৈরি করেনি

  • প্রকাশিত ০৪:০৭ বিকেল জানুয়ারী ১৯, ২০২০
রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির
কক্সবাজারের একটি রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির। এএফপি

গত ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি আরব আমিরাত সফরকালে রাজধানী আবুধাবিতে গালফ নিউজ’কে একটি বিশেষ সাক্ষাৎকার দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশের পক্ষে আজীবন ১০ লাখের বেশি শরণার্থীর দায়িত্ব নেওয়া সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি আরব আমিরাত সফরকালে রাজধানী আবুধাবিতে গালফ নিউজ’কে একটি বিশেষ সাক্ষাৎকার দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে তিনি বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। চলমান রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে মতামত ব্যক্ত করে একথা তিনি।

শেখ হাসিনা জানান, বাংলাদেশ ও ভারতের সাথে বর্তমানে স্মরণকালের সর্বোচ্চ সুসম্পর্ক বিরাজ করছে। তবে, প্রতিবেশী আরেক দেশ মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা ১২ লাখ রোহিঙ্গার কক্সবাজারে এসে আশ্রয় নেওয়ার বিষয়ে নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, “মিয়ানমারে রোহিঙ্গা সঙ্কটের সৃষ্টি এবং সমাধানও তাদের কাছেই রয়েছে। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে, মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও সম্মানের সাথে প্রত্যর্পণে কোনও দৃশ্যমান পদক্ষেপই নিচ্ছে না। এর আগে দুইবার আমাদের নেওয়া পদক্ষেপ একেবারেই ব্যর্থ হয়েছে। কেননা, একজন রোহিঙ্গাও স্বেচ্ছায় মিয়ানমারে ফিরতে রাজি হয়নি। এতে এটিই প্রমাণিত হয় যে মিয়ানমার তাদের দেশে ফিরে যাওয়ার মত পরিবেশ তৈরি করতে পারেনি।”


আরও পড়ুন - প্রধানমন্ত্রী: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের কোনও প্রয়োজন ছিলো না


শেখ হাসিনার মতে, বাংলাদেশের পক্ষে আজীবন এই ১০ লাখের বেশি শরণার্থীর দায়িত্ব নেওয়া সম্ভব নয়। 

তিনি বলেন, “যদি বিষয়টি খুব বেশিদিন স্থায়ী হয় তবে, অঞ্চলটির নিরাপত্তা ও স্থিতিতে মারাত্মক প্রভাব ফেলবে। আর একারণেই আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই এবিষয়ে ধারাবাহিকভাবে পদক্ষেপ নিয়ে যেতে হবে, যতদিন না একটি স্ধায়ী সমাধান হচ্ছে।”