• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৯ রাত

স্কুলছাত্রীকে ২ দিন আটকে রেখে গণর্ধষণ, গ্রেফতার আরও ৩

  • প্রকাশিত ০৭:০১ রাত জানুয়ারী ২০, ২০২০
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি।

গত ৯ জানুয়ারি ওই ছাত্রীকে ৫০০ টাকা ধার পরিশোধের কথা বলে ডেকে এনে অপহরণ করা হয়

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় আরও তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার (১৯ জানুয়ারি) খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন-উপজেলার তারাবো পৌরসভার তানভীর (২৮), ফয়সাল আহম্মেদ (২৫) ও রবিন ভূঁইয়া (২৮)। 

এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) রফিকুল হক জানান, ঘটনার পর থেকেই তানভীর পলাতক ছিল। তদন্তের মাধ্যমে তানভীরের অবস্থান নিশ্চিত করে খাগড়াছড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ফয়সাল ও রবিন নামের আরও দুইজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, এ ঘটনায় এ পর্যন্ত  ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

উল্লেখ্য, গত ৯ জানুয়ারি ওই ছাত্রীকে ৫০০ টাকা ধার পরিশোধের কথা বলে ডেকে এনে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে দুদিন আটকে রেখে গণধর্ষণ করে ১০ জানুয়ারি রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের রাস্তায় ফেলে রাখা হয়। 

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা বাদি হয়ে রূপগঞ্জ থানায় তৌসিফ, আফজাল, আবু সুফিয়ান সোহান ও তানভীরসহ চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও দুই থেকে তিনজনকে আসামি করে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার রাতেই তৌসিফ ও আফজালকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অন্যদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ থানা এলাকা থেকে ফেনসিডিলসহ আবু সুফিয়ান সোহানকে গ্রেফতার করা হয়। তাকেও এই মামলায় গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।