• রবিবার, মার্চ ২৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩২ রাত

পুলিশ-পাহারাদারদের বেঁধে রেখে ১১ গহনার দোকানে ডাকাতি

  • প্রকাশিত ০৮:২৬ রাত জানুয়ারী ২২, ২০২০
চাঁদপুর ডাকাতি
মঙ্গলবার দিবাগত রাতে চাঁদপুরের মতলবের দু'টি বাজারে ডাকাতির ঘটনা ঘটে ঢাকা ট্রিবিউন

মোট ৭৮ ভরি সোনা, ১১শ' ভরি রুপা ও নগদ সাড়ে ৭ লাখ টাকা নিয়ে গেছে ডাকাতরা

চাঁদপুরের মতলব (উত্তর) উপজেলায় দু'টি বাজারে পুলিশ সদস্য ও পাহারাদাদের অস্ত্রের মুখে বেঁধে রেখে ১১টি গহনার দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার ষাটনল ইউনিয়নের কালীপুর বাজারের চারটি ও বাগানবাড়ি ইউনিয়নের কালীর বাজারে সাতটি দোকান থেকে মোট ৭৮ ভরি সোনা, ১১শ' ভরি রুপা ও নগদ সাড়ে ৭ লাখ টাকা নিয়ে গেছে ডাকাতরা।

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ঢাকা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন মতলব উত্তর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহ জাহান কামাল।

পুলিশ সদস্য ও স্থানীয়রা জানান, বাগানবাড়ি ইউনিয়নের কালীর বাজারে ৭টি সোনার দোকান ও একটি ফার্মেসির মালামাল নিয়ে গেছে ডাকাত দল। এ সময় বেঁধে রাখা হয় ঘটনাস্থলে দায়িত্বরত পুলিশের তিন সদস্য, একজন গাড়িচালক, বাজারের চার পাহারাদার ও দুই পথচারীকে আটক করে একটি দোকানে বেঁধে রাখে ডাকাতরা।

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল জানান, চিৎকার শুনে রাত দুইটার পর বাজারে গিয়ে পুলিশ, পাহারাদার ও পথচারীসহ ১০ জনকে একটি দোকানে বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়।

বাজারের নৈশপ্রহরী মো. রফিকুল ইসলাম জানান, রাত আনুমানিক তিনটার দিকে ১৮-২০ জনের একটি মুখোশ পরা ডাকাতদল বাজারে পাহারাদার ও পুলিশ সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৪ টি দোকানের স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ অর্থ লুট করে নিয়ে  যায়।

ঘটনাস্থলে দায়িত্বরত ছিলেন পাহারাদার- ফারুক পাটোয়ারী, রানা মিয়া ও খোকন মিয়া। 

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, কালীরবাজার থেকে মোট ৪৬ ভরি সোনা, ৮২২ ভরি রুপা, নগদ ২ লাখ ৮৭ হাজার টাকা খোয়া গেছে। আরেক ব্যবসায়ী শামসুজ্জামান বাবুল জানান, তার দোকান থেকে দুই লাখ টাকা সমমূল্যের বিভিন্ন কোম্পানির সিম কার্ড, ডাটা কার্ড ও নগদ ২০ হাজার টাকা নিয়ে গেছে ডাকাতরা।

এদিকে, ষাটনল ইউনিয়নের কালীপুর বাজারে নৈশপ্রহরীর দায়িত্বে ছিলেন- মো. রফিকুল ইসলাম, মো. শহিদুল্লাহ, মো. মুসলিম, রুবেল ও দুলাল মিজি।

তারা জানান, কালীপুর বাজার থেকে ৩২ ভরি স্বর্ণ, ২৪০ ভরি রুপা, নগদ  সাড়ে ৪ লাখ টাকা ও ১৪ হাজার টাকার প্রাইজবন্ড নিয়ে গেছে ডাকাতরা।

খবর পেয়ে বুধবার বিকেলে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি জাকির হোসেন, চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুর রহমান, মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এম জহিরুল হায়াত ও মতলব উত্তর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজাহান কামালসহ পিবিআই, পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তারা।

বাগানবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নান্নু মিয়া জানান, বাজারটি কুমিল্লা, মুন্সিগঞ্জ, চাঁদপুরের তিনটি থানার নদীর মোহনা এলাকা ও নদীবেষ্টিত হওয়ায় ব্যবসায়ীসহ স্থানীয়রা নিরাপত্তাহীনতার শংকায় থাকেন সবসময়।

মতলব উত্তর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহ জাহান কামাল জানান, এই ডাকাতির ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের অভিযান চালানো হবে।