• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৭ সকাল

বান্দরবানে আবারও পপিখেতের সন্ধান, সেনাবাহিনীর অভিযান

  • প্রকাশিত ০৮:০৯ রাত জানুয়ারী ২৮, ২০২০
পপি-বান্দরবান
কেওক্রাডং পাহাড়ের পাশে পপিখেত। ঢাকা ট্রিবিউন

অভিযানে পাঁচ একর পপিখেত ধ্বংস ও একজন পপি চাষিকে আটক করেছে সেনাবাহিনী


পার্বত্য জেলা বান্দরবানের দুর্গম এলাকায় আবারও পাঁচ একর পপিখেত ধ্বংস করেছে সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) ভোরে রুমার ম্রোক্ষিয়াং ঝিড়ি এলাকায় ওই পপিখেত ধ্বংস করা হয়। এ ঘটনায় এক পপি চাষিকে আটক করেছে সেনা সদস্যরা। 

জানা গেছে, মঙ্গলবার ভোরে রুমা জোনের (২৭ ইবি) ক্যাপ্টেন মো. আশিকুর রহমানের নেতৃত্বে একটি টহল দল রুমা বাজার পাড়া আর্মি ক্যাম্প থেকে ৭-৮ কিলোমিটার দূরে ক্যাতোই খুমি পাড়ার ম্রোক্ষিয়াং ঝিড়ির পাশের এলাকার ৪-৫টি স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ একর জমির পপিখেত ধ্বংস করে।

এ সময় সেনাসদস্যদের উপস্থিতি বুঝতে পেরে স্থানীয় পপি চাষিরা পালিয়ে যায়। পরে অভিযান চালিয়ে পেনন খুমি নামে এক পপি চাষি আটক করে সেনা সদস্যরা। পেইন খুমি রুমা উপজেলার ক্যাত্যই খুমি পাড়ার সাংহই খুমির ছেলে।


আরও পড়ুন - বান্দরবানে সাত একর জমিতে পপিক্ষেত, র‌্যাবের অভিযান


এ বিষয়ে ক্যাপ্টেন মো. আশিকুর রহমান বলেন, পেনন খুমি দীর্ঘদিন ধরে পপি চাষ করে আসছিল বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ জানুয়ারি বান্দরবানের রুমা উপজেলার দুর্গম কেওক্রাডং পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে ৪টি পপিখেত এবং ৬০ কেজি পপির রস ধ্বংস করেছিল র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।