• বুধবার, মে ২৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪১ সন্ধ্যা

অবশেষে স্বজনদের ফিরে পেলেন রেলস্টেশন থেকে উদ্ধার হওয়া শতবর্ষী বৃদ্ধা

  • প্রকাশিত ০৯:২৭ রাত জানুয়ারী ২৯, ২০২০
বৃদ্ধা-চাঁপাইনবাবগঞ্জ
মঙ্গলবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে উদ্ধার হওয়া শতবর্ষী বৃদ্ধা রাহেলা খাতুনকে তার পরিবার ও স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ঢাকা ট্রিবিউন

ছোট ছেলের বাড়ি থেকে ফেরার সময় পথ হারিয়ে ফেলেন তিনি

অবশেষে ১৭ দিন পর চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে উদ্ধার হওয়া শতবর্ষী বৃদ্ধাকে তার পরিবার ও স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ওই বৃদ্ধার নাম রাহেলা খাতুন। তিনি যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত. গোলাম নবী মন্ডলের স্ত্রী। 

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) রাহেলা খাতুনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর রাতেই তাকে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান, রহনপুর পৌর মেয়র তারিক আহমদ, রহনপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল মালেক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) হাবিবুর রহমান, ওই বৃদ্ধার ছেলে আবুল কাশেম, পুত্রবধু রহিমা বেগম, রামচন্দ্রপুর এলাকার ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন ও প্রতিবেশী মহিউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

বৃদ্ধার পুত্রবধু রহিমা বেগম জানান, "যশোরের বেনাপোলে ছোট ছেলের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন তার শাশুড়ি। এর কয়েক দিন পর বড় ছেলের বাড়ি নাভারণে ফেরার পথে ভূলক্রমে খুলনা থেকে রহনপুরগামী মহানন্দা ট্রেন যোগে রহনপুরে এসে পৌঁছে। এরপর থেকেই তিনি নিখোঁজ হন।"

গোমস্তাপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, "আমরা যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে নিশ্চিত হয়েছি যে শতবর্ষী এই বৃদ্ধা আবুল কাশের মা। আমরা বৃদ্ধাকে তার পরিবারের কাছে করে রাত নয়টার দিকে হস্তান্তর করেছি। তবে সেখানকার প্রশাসনের নজরদারিতে থাকবেন তিনি। হস্তান্তরের আগে এ জন্য বৃদ্ধাকে যথাযথভাবে দেখভাল করা হবে এই মর্মে অঙ্গিকারনামায় স্বাক্ষর করেছেন তার স্বজনেরা।" 

উল্লেখ্য, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রহনপুর রেলওয়ে স্টেশনে পরিত্যক্ত একটি প্ল্যাটফর্মে শতবর্ষী ওই বৃদ্ধার অসহায় অবস্থায় পড়ে থাকার খবর প্রচার হলে ১২ জানুয়ারি রাতে রহনপুর পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) তৌহিদ মন্ডল ও তার সহকর্মী নুরুন্নবী তাকে উদ্ধার করে গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। হাসপাতালে ভর্তির পর রহনপুর পৌরসভার মেয়র ও স্থানীয় প্রশাসন তার দেখাশুনা করে আসছিলেন।

পরে গোমস্তাপুর উপজেলা প্রশাসন ওই বৃদ্ধার সন্ধান চেয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমসহ সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার-প্রচারণা চালায়। এরই সূত্র ধরে তার স্বজনরা গত সোমবার গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এলেও তাকে শনাক্ত করতে পারেননি। পরে মঙ্গলবার তার পরিচয় নিশ্চিত হয়।

54
50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail