• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৩ সকাল

শিক্ষা সফরে গিয়ে শিশুর মৃত্যু

  • প্রকাশিত ০৫:০২ সন্ধ্যা জানুয়ারী ৩১, ২০২০
ফৌজিয়া আরেফিন সামিউন
শিশু ফৌজিয়া আরেফিন সামিউন। সংগৃহীত

শিশুটির পরিবারের দাবি, শিক্ষকদের অবহেলার কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে

কুমিল্লার কোটবাড়ি ম্যাজিক প্যারাডাইস পার্কে শিক্ষা সফরে এসে ফৌজিয়া আরেফিন সামিউন (৮) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে লক্ষ্মীপুর ইলেভেন কেয়ার একাডেমি'র দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেলে কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার কোটবাড়ি ম্যাজিক প্যারাডাইস পার্কে এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম।   

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে বনভোজনের উদ্দেশে কুমিল্লার কোটবাড়ি ম্যাজিক প্যারাডাইস পার্কে আসে লক্ষ্মীপুর ইলেভেন কেয়ার একাডেমির শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। তবে, বনভোজনে আসেননি ফৌজিয়ার বাবা-মা। সেখানে পৌঁছে একটি পুলে খেলতে নামে ফৌজিয়া। পানির সংস্পর্শে এসে ঠান্ডাজনিত কারণে খিচুনি শুরু হয় তার। এক পর্যায়ে সে বমি করে। পরে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ফৌজিয়ার বাবা গিয়াস উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, "শিক্ষকদের অবহেলার কারণেই আমার মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। মেয়েকে একা ছাড়তে অনিচ্ছা থাকা সত্ত্বেও শিক্ষকরা দায়িত্ব নেওয়ায় বনভোজনে যেতে দিতে আমি বাধ্য হয়েছি।"

ইলেভেন কেয়ার একাডেমির অধ্যক্ষ রিয়াজুল ইসলাম বলেন, "শিশু সামিউনের মৃত্যু সবাইকে মর্মাহত করেছে। এটি খুবই বেদনাদায়ক। মৃত্যুটি মেনে নেয়াও খুব কষ্টদায়ক। ঠান্ডা লেগে সামিউন অসুস্থ হয়ে গেলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ঠান্ডাজনিত কারণেই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। বনভোজনে শিশুদের প্রতি দায়িত্বে আমাদের কোনো অবহেলা ছিল না।"

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, "শিশু মৃত্যুর বিষয়টি শুনেছি। তবে কোন হাসপাতালে মারা গিয়েছে তার পার্ক কর্তৃপক্ষও বলতে পারছে না। আমরা খোঁজ খবর নিচ্ছি।"