• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৭ সকাল

জিন তাড়ানোর নাম করে পানিতে চুবিয়ে হত্যা

  • প্রকাশিত ০৯:৫১ রাত ফেব্রুয়ারি ১, ২০২০
মৃত্যু
প্রতীকী ছবি

হত্যার পর কালামের লাশ বাগানে ফেলে পালিয়ে যান রিয়াজ ফকির ও তার সহযোগীরা

বরিশালের বাকেরগঞ্জে জিন তাড়ানোর নাম করে এক ব্যক্তিকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে রিয়াজ ফকির নামে এক ব্যক্তি ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার আউলিয়াপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন বাকেরগঞ্জ থানার সার্কেল ইনস্পেক্টর আনোয়ার সাঈদ।

নিহত আবুল কালাম মৃধা (৪৮) পটুয়াখালী সদর উপজেলার বদরপুর ইউনয়নের খলিশখালী গ্রামের বাসিন্দা ছিলে।  শনিবার সকালে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, সম্প্রতি অস্বাভাবিক আচরণ শুরু করে কালাম। এতে তার ওপর "জিনের আসর" হয়েছে বলে সন্দেহ করেন পরিবারের সদস্যরা।

পরে শুক্রবার সকালে "জিন তাড়াতে" কালামকে "ওঝা" রিয়াজ ফকিরের কাছে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পর তাকে সকাল ১০টা ও বিকাল ৪টায় জিন তাড়ানোর নাম করে তাকে দুই দফায় পানিতে চোবানো হয়। দুই দফাতেই কালামকে লাঠি দিয়ে ব্যাপক মারধর করেন রিয়াজ ফকির ও তার সহযোগীরা।

এতে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে নিজের বোন আনিকা বেগমের বাড়িতে লুকিয়ে রাখেন রিয়াজ এবং সে সুস্থ হয়ে উঠছে বলে কালামের স্ত্রীকে বাড়ি চলে যেতে বলেন।

তবে রাতে মৃত্যু হয় কালামের। পরে তার লাশ একটি বাগানে ফেলে রেখে পালিয়ে যান রিয়াজ ফকির ও তার সহযোগীরা। সকালে স্থানীয়রা লাশটি দেখতে পেয়ে পুলিশ খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে রিয়াজ ফকিরের বোন আনিকা বেগমকে আটক করে।

সার্কেল ইনস্পেক্টর আনোয়ার সাঈদ ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরিশালের শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় কোনও মামলা না হলেও রিয়াজ ফকির ও তার সহযোগীদের আটকের চেষ্টা চালানো হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিয়াজ ফকিরের বোনকে আটক করা হয়েছে।"