• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৫৩ দুপুর

মৌলভীবাজারে চা বাগানের কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ

  • প্রকাশিত ১০:৩৬ সকাল ফেব্রুয়ারি ২, ২০২০
গণধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকালে উপজেলার শমসেরনগর চা বাগান এলাকা থেকে অভিযুক্ত যুবক সজিব মাঝিকে আটক করে শমসেরনগর ফাঁড়ি পুলিশ

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা বাগানে প্লান্টেশন ভেতরে চা বাগানের এক কিশোরীকে (১২) আটকিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে সজিব মাঝি (২৪) এক চা শ্রমিক যুবককে আটক করেছে থানা পুলিশ।

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকালে উপজেলার শমসেরনগর চা বাগান এলাকা থেকে তাকে আটক করে শমসেরনগর ফাঁড়ি পুলিশ। আটককৃত উপজেলার শমসেরনগর চা বাগানের মৃত সন্টু মাঝির ছেলে।

চা বাগান ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকালের উপজেলার শমশেরনগর চা বাগানের নারায়ণ টিলার কিশোরী (১২) পার্শ্ববর্তী চা প্লান্টেশন ভেতরে টয়লেট শেষে ফেরার পথে একই এলাকার সজিব তাকে ধরে নিয়ে নির্জন স্থানে আটকিয়ে রেখে ধর্ষণ করে। ওইদিন রাত ৮টায় নির্যাতিতা কিশোরীকে ছেড়ে দিলে সে তার ঘরে ফিরে ঘটনাটি সবাইকে জানায়।

পরে ঘটনার পরদিন শনিবার দুপুরে নির্যাতিতা কিশোরী ও তার মা কমলগঞ্জ থানার শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়িতে ঘটনাটি জানালে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরী অভিযুক্ত যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

নির্যাতিত কিশোরীর মা জানান, তিনি সকালে চা বাগানে কাজে গেলে ঘরে মেয়ে একা থাকতো। তখন বখাটে সজিব তার মেয়েকে নানাভাবে উত্যক্ত করতো। শুক্রবার মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়। থানা পুলিশের কাছে মৌখিকভাবে অভিযোগ করা হয়েছে।

কমলগঞ্জ থানার শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরী বলেন, “নির্যাতিতর মায়ের মৌখিক অভিযোগে সজিব মাঝি নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। ধর্ষণের বিষয়টি নিয়ে অধিকতর তদন্তসাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।”