• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৪ রাত

সতীনকে বাড়িতে ডেকে এনে গলাটিপে হত্যা

  • প্রকাশিত ০৮:৪৮ রাত ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০
মৃত্যু
প্রতীকী ছবি

তাদের মধ্যে দাম্পত্য বিষয় নিয়ে কথা কাটা-কাটি ও ধস্তাধস্তি হয়

গাজীপুরে বেড়ানোর কথা বলে বাড়িতে ডেকে এনে স্বামীর প্রথম স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যা করেছেন সাথী আক্তার নামে এক নারী। নিহত রোজিনা বেগম (৩৫) শেরপুর জেলা সদর উপজেলার দশানিবাজার এলাকার হাবিবুর রহমানের প্রথম স্ত্রী।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে গাজীপুর মহানগরের পূর্ব চান্দনা এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত সাথী আক্তার নামে ওই নারীকে আটক করেছে পুলিশ।

গাজীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর ভুঁইয়া ঢাকা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফিরোজ উদ্দিন জানান, পূর্ব চান্দনা এলাকায় দ্বিতীয় স্ত্রী সাথী আক্তারকে নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন রিকশাচালক হাবিবুর। তার প্রথম স্ত্রী রোজিনা বেগম সন্তানদের নিয়ে গ্রামের বাড়ি শেরপুরে থাকতেন।

সম্প্রতি রোজিনা গ্রামের বাড়ি থেকে গাজীপুরের পূর্ব চান্দনা এলাকায় তার বাবা-মায়ের কাছে বেড়াতে আসেন। বিষয়টি জানতে পেরে সাথী আক্তার বেড়ানোর কথা বলে রোজিনাকে মুঠোফোনে তার বাসায় ডেকে আনেন। সেখানে তাদের মধ্যে দাম্পত্য ইস্যুতে কথা কাটা-কাটি ও ধস্তাধস্তি শুরু হয়।

এসআই ফিরোজ আরও বলেন, ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে তারা পরস্পরের গলাটিপে ধরলে রোজিনা অচেতন হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক রোজিনাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার এবং সাথী আক্তারকে আটক করে।

দাম্পত্য কলহের জেরে ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।