• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৫ সকাল

প্রধানমন্ত্রী: দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে

  • প্রকাশিত ০৩:৫৯ বিকেল ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২০
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফোকাস বাংলা

'আমাদের সশস্ত্র বাহিনী বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেখানে যেখানে কাজ করেছে, মানবিক সেবা প্রদানের মাধ্যমে সেখানকার মানুষের হ্রদয় জয় করেছে'

সমাজের অবক্ষয় রোধে দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে মিরপুর সেনানিবাসে কমান্ড্যান্ট, সামরিক বাহিনী কমান্ড ও স্টাফ কলেজ কোর্সের সমাপনী এবং গ্র্যাজুয়েশন সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন বলে ইউএনবি'র একটি খবরে বলা হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, "আমরা ইতোমধ্যে মাদক, সন্ত্রাসবাদ জঙ্গিবাদ এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছি। সুতরাং, দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।"

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার দেশের যুব সমাজের যোগ্যতা, জ্ঞান এবং শক্তিকে দেশের স্বার্থে কাজে লাগাতে চায়।

বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী এখন জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অবদান রেখে চলেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা আরও বলেন, "আমি তাদের আধুনিক বাহিনী হিসাবে গড়ে তুলতে চাই যাতে তারা যে কোনো দেশের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে পারে এবং যে কোনো পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে পারে।

"আমাদের সশস্ত্র বাহিনী (বিশ্বের) যেখানে কাজ করেছে, দেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে। আমাদের সশস্ত্র বাহিনী বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেখানে যেখানে কাজ করেছে, মানবিক সেবা প্রদানের মাধ্যমে সেখানকার মানুষের হ্রদয় জয় করেছে," যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, সেনাবাহিনীর ১২৫ জন, নৌবাহিনীর ৩৪ জন, বিমান বাহিনীর ২২ জন এবং বিশ্বের ২১ দেশের ৫৪ জন অফিসারসহ চলতি বছরে ২৩৫ জন অফিসার গ্র্যাজুয়েশন সনদ নিচ্ছেন।

২১টি দেশের মধ্যে রয়েছে- চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, কুয়েত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন, ফিলিপাইন, সৌদিআরব, সিয়েরা লিওন, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলংকা, সুদান, তানজানিয়া, তুরস্ক, উগান্ডা, যুক্তরাষ্ট্র ও জাম্বিয়া।