• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৩৫ দুপুর

বিয়ের ২ মাস পর থেকেই ধর্ষণ শুরু করেন শ্বশুর

  • প্রকাশিত ০৭:২৭ রাত ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২০
গণধর্ষণ-ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি বিগস্টক

আবদুল মোমিন এলাকায় ভণ্ড কবিরাজ হিসেবে পরিচিত

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার ছয় মাস ধরে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তার শ্বশুরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার আবদুল মোমিন নামের ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ওই নারী দুপচাঁচিয়া থানায় তার শ্বশুরের বিরুদ্ধে মামলা করেন। শনিবার রাতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

এ ঘটনায় রবিবার আবদুল মোমিনকে আদালতে হাজির করা হয়। অপর দিকে ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেজ) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

দুপচাঁচিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুপচাঁচিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শফিকুর রহমান জানান, আবদুল মোমিন এলাকায় ভণ্ড কবিরাজ হিসেবে পরিচিত। তার দিনমজুর ছেলে সুজন প্রায় আট মাস আগে ওই নারীকে বিয়ে করেন। বিয়ের দু’মাস পর থেকে ছেলে কাজে গেলে, মোমিন তার ছেলের বউকে ভয় ও নানা প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করতে থাকেন। সর্বশেষ ৪ ফেব্রুয়ারি বাড়িতে কেউ না থাকায় শ্বশুর মোমিন তাকে আবারও ধর্ষণ করেন। পরে তিনি শনিবার রাতে দুপচাঁচিয়া থানায় শ্বশুরের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। 

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, রবিবার দুপুরে মোমিনকে বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।