• সোমবার, এপ্রিল ০৬, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৪ রাত

শনিবার বাড়ি ফিরবেন চীন ফেরত ৩১২ বাংলাদেশি

  • প্রকাশিত ১০:৫৩ রাত ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০
করোনাভাইরাস
১ ফেব্রুয়ারি চীন দেশে ফেরেন ৩১২ জন বাংলাদেশি। সৌজন্যে

'আশকোনা হজ ক্যাম্পে কোয়ারান্টাইনে  থাকা সবাই ভালো আছেন'

নভেল করোনাইভাইরাস (এনকভ-২০১৯) সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ এর উৎপত্তিস্থল চীনের উহান থেকে ফিরে আসা ৩১২ বাংলাদেশি ১৪ দিন পৃথক অবস্থায় থাকার পর শনিবার নিজেদের বাড়ি ফিরে যাবেন বলে  জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান বলে বার্তা সংস্থা ইউএনবি'র একটি খবরে বলা হয়।

জাহিদ মালেক বলেন, "চীন থেকে ফেরা এ বাংলাদেশিরা কোয়ারেন্টিনের শেষ পর্যায়ে আছেন। ১৪ ফেব্রুয়ারি তাদের পর্যবেক্ষণের ১৪ দিন পূর্ণ হবে। সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ১৫ তারিখ আমরা তাদের ছেড়ে দেব। এখানে আর কোনো সমস্যা নেই। তাদের সবাই ভালো আছেন।"

এ সময় করোনাভাইরাস নিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় যেসব বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে সেগুলো প্রতিহত করার আহবান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, "আমরা দু-একটি ঘটনা শুনছি। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হননি। রংপুরে একজন ভর্তি হয়েছেন। বিভিন্ন জায়গায় নানা অসুখ নিয়ে লোকজন ভর্তি হয়। আমাদের কখনও মনে করা উচিত না তারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। যে পর্যন্ত প্রমাণ না হয় তার আগ পর্যন্ত তাকে যেন এটা আমরা না বলি। এ ধরনের কথা বললে আতঙ্ক ছড়ায়।"

গত ১ ফেব্রুয়ারি ৩১২ বাংলাদেশি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান এবং তাদের মাঝে করোনাভাইরাস আছে কি না তা জানতে তখন থেকে তাদের আশকোনা হজ ক্যাম্পে পৃথক করে রেখে পর্যবেক্ষণ করা হয়। সেই সাথে আটজনের শরীরে জ্বর থাকায় তাদের ঢাকার দু'টি হাসপাতালে রাখা হয়।

এদিকে, বার্তা সংস্থা এপি'র প্রতিবেদন অনুযায়ী করোনাভাইরাসের মূল জায়গা হুবেই প্রদেশে আক্রান্ত ও মৃতের গণনায় নতুন পদ্ধতি প্রয়োগ করে দেখা গেছে যে এক দিনের ব্যবধানে মৃতের সংখ্যা ২৫৪ এবং আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ১৫২ জন বেড়েছে।

দুই মাস বয়সী এ প্রাদুর্ভাবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট মারা গেছেন এক হাজার ৩৬৭ জন। আর নিশ্চিতভাবে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯ হাজার ৮০৪ জন।