• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৩৬ দুপুর

দুদক প্রধান: কর ফাঁকি দেয়া বিদেশিদের ধরুন

  • প্রকাশিত ০৬:২৯ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০
দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ
রবিবার রাজধানীর বিসিএস কর একাডেমি মিলনায়তনে দুদক ও এনবিআর কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কোর্সে বক্তব্য রাখেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। ইউএনবি

'কর আহরণের সময় কোনো সৎ ব্যবসায়ীকে হয়রানি করবেন না'

বাংলাদেশে কাজ করা বিদেশিদের মধ্যে যারা চিহ্নিত কর ফাঁকিবাজ তাদের ধরতে জাতীয় রাজস্ব রোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তাদের আহ্বান জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বিসিএস কর একাডেমি মিলনায়তনে দুদক ও এনবিআর কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কোর্সে তিনি এ আহ্বান জানান বলে ইউএনবি'র একটি খবরে বলা হয়। 

এনবিআর কর্মকর্তাদের উদ্দেশে ইকবাল মাহমুদ বলেন, "বাংলাদেশে কাজ করা বিদেশিদের মধ্যে যারা চিহ্নিত কর ফাঁকিবাজ তাদের ধরুন। কেউ যাতে কর ফাঁকি এবং জনসাধারণের অর্থ আত্মসাৎ করতে না পারে সে জন্য বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এবং বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সাথে যোগাযোগ বাড়ান।"

দুদক প্রধান আরও বলেন, "কর আহরণের সময় কোনো সৎ ব্যবসায়ীকে হয়রানি করবেন না। আমরা করের হার বাড়ানো নয়, কর জাল বিস্তৃত করতে চাই। আপনারা (দুদক ও এনবিআর কর্মকর্তা) বাংলাদেশের লক্ষ্য অর্জনে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করবেন।"

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিসিএস কর একাডেমির মহাপরিচালক মো. লুৎফুল আজীম।

উল্লেখ্য, গত ৫ ফেব্রুয়ারি ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) জানায়, বাংলাদেশে কর্মরত বিদেশি নাগরিকরা বছরে ২৬ হাজার ৪০০ কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছেন এবং এর ফলে ১২ হাজার কোটি টাকার কর হারাচ্ছে রাষ্ট্র। ২০১৮ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত পরিচালিত এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে বাংলাদেশে প্রায় আড়াই লাখ বিদেশি (বৈধ ও অবৈধভাবে) কাজ করছেন।