• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৫৫ রাত

জন্মভূমি বাংলাদেশে ভালোবাসায় সিক্ত ইংল্যান্ডের র‍্যামসগেটের মেয়র রওশন

  • প্রকাশিত ০৮:৩১ রাত ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
মানিকগঞ্জ-মেয়র-রওশন আরা
বুধবার র‍্যামসগেট শহরের মেয়র রওশন আরা দোলনকে সংবর্ধনা দেয় মানিকগঞ্জবাসী ‌‌ঢাকা ট্রিবিউন

মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এবারই প্রথমবারের মতো জন্মভূমিতে এলেন তিনি

ইংল্যান্ডের র‍্যামসগেট শহরের মেয়র ব্যারিস্টার রওশন আরা দোলন। জন্ম বাংলাদেশে হলেও বেড়ে ওঠা সুদূর ইউরোপে। তবে মাটির টান ভুলে যাননি তিনি। মেয়রের দায়িত্ব, ব্যবসায়িক আর পারিবারিক ব্যস্ততা সবকিছুর মধ্যেই জন্মভূমি মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে এসেছেন তিনি। আর তাকে ভালোবাসায় সিক্ত করে বরণ করেছেন উপজেলার মানুষ।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার তালেবপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে রওশন আরা দোলনকে গণ-সংবর্ধনা দেন স্থানীয়রা। গত বছর র‍্যামসগেটের মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এবারই প্রথমবারের মতো জন্মভূমিতে এলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরেই বাংলাদেশি-ব্রিটিশ মেয়রের নিজ গ্রামে আসার খবর ভেসে বেড়াচ্ছিল স্থানীয়দের মুখে মুখে। অবশেষে এদিন সকাল পৌনে ১১টার দিকে তাকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি তালেবপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অবতরণ করে। 

খবর পেয়ে ঢল নামে হাজারও মানুষের। বিলেতের মাটিতে সফল হওয়া গ্রামের মেয়েটিকে এক নজর দেখার জন্য সেখানে ছুটে যান বিভিন্ন বয়সী মানুষ। স্কুল মাঠে তাকে দেওয়া হয় গণসংবর্ধনা । এরপর তিনি কাঁঠালবাগান গ্রামের পৈতৃক বাড়িতে যান। 

স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের তিনি জানান, তালেবপুর ইউনিয়নের ইরতা কাশিমপুর কাঁঠালবাগান গ্রামে তার জন্ম। ১৯৬৭ সালে ১৩ বছর বয়সে বাবা প্রকৌশলী রজ্জব আলী খানের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান তিনি। তখন তিনি তালেবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। সেই থেকে স্বপরিবারে সেখানে বসবাস। পড়াশোনা শেষে যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির রাজনীতিতে যুক্ত হন রওশন।

ইংল্যান্ডে বেড়ে উঠলেও রওশন মাতৃভাষায় কথা বলতেই ভালোবাসেন। তার সন্তানসহ পরিবারের সবাই বাংলায়ই কথা বলেন। 

তিনি আরও জানান,  গত বছরের ১৪ মে লেবার পার্টির ব্যানারে মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি ওই শহরে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িত। 

জন্মস্থানের মানুষের জন্যও তিনি কাজ করেছেন যথাসাধ্য। এলাকায় মসজিদ, মাদ্রাসা, ঈদগাহ, কবরস্থান নির্মাণ করেছেন। গ্রামের বাড়িতে “র‍্যামস-বাংলা মহিলা উন্নয়ন সংস্থা” নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন। তার স্বামী রেজাউর রহমান জামানের বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায়। তিন বোন ও দুইভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার বড়। 

এ বছর দেশেই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করবেন। মানিকগঞ্জে জন্ম নেওয়া ভাষা শহীদ রফিককে শ্রদ্ধা জানাতে তার গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার ইচ্ছা রয়েছে তার।