• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৭ রাত

আয়াকে দিয়ে ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় বহিস্কারের হুমকি!

  • প্রকাশিত ১০:৪৮ সকাল ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
রাজশাহী অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক
অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম ঢাকা ট্রিবিউন

ওই ছাত্রীকে পরীক্ষায় বেশি নম্বরের প্রলোভনও দিতেন অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে চণ্ডিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, মেয়েকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগে বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন ভুক্তভোগী ছাত্রীরা বাবা। যার পরিপ্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম ভুক্তভোগী ছাত্রীকে প্রায়ই আপত্তিকর কথা-বার্তা বলতেন। পরীক্ষায় বেশি নম্বর দেওয়ারও প্রলোভন দিতেন তিনি। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি বিদ্যালয়ের আয়া জরিনা বেগমের মাধ্যমে ওই ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেন তিনি। রাজি না হওয়ায় তাকে স্কুল থেকে বহিস্কারের হুমকি দেন প্রধান শিক্ষক। বিষয়টি অভিভাবকদের জানায় ওই ছাত্রী। 

মৌখিকভাবে ১৭ ফেব্রুয়ারি বিষয়টি উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দফতরের প্রধানকে জানানো হয়। এছাড়াও ওই ছাত্রীর অভিভাবক জেলা প্রশাসক, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছেও লিখিত অভিযোগ করেন।

এ প্রসঙ্গে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও বাজুবাঘা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান ফজল বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, এই বিষয়ে অভিযোগপত্রের একটি অনুলিপি পেয়েছি। আমার দফতর থেকে তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।