• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৭ রাত

‘চীন থেকে বেনাপোলে আসা ব্যক্তিকে নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই’

  • প্রকাশিত ০১:৪৬ দুপুর ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
বেনাপোল করোনা
চীন থেকে ভারত হয়ে বেনাপোল স্থলবন্দরে আসা এক ব্যক্তিকে পরীক্ষা করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ফাইল ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

গত ২৯ জানুয়ারি তিনি চীন থেকে বাংলাদেশে আসেন। এরপর দর্শনা বন্দর দিয়ে বুধবার তিনি ভারতে প্রবেশ করেন

চীন থেকে ভারত হয়ে বেনাপোল স্থলবন্দরে আসা এক ব্যক্তিকে কোভিড-১৯ (নভেল করোনাভাইরাস সৃষ্ট রোগ) আক্রান্ত সন্দেহে সকালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে।

তবে, বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে জেলা সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানিয়েছেন, আতঙ্কিত হওয়ার মতো কোনো আলামত তার শরীরে পাওয়া যায়নি।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোরশেদ আলম সাংবাদিকদের জানান, বৃহস্পতিবার সকালে ভারত থেকে আসা বন্ধন এক্সপ্রেস ট্রেনে একজন চীন ফেরৎ যাত্রী রয়েছেন- এমন খবর পেয়ে ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস সদস্যরা তাকে স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে নিয়ে যান।

জহিরুল ইসলাম (৩০) নামের ওই যাত্রীর বাড়ি কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার শিবনগর বকশিকান্দা গ্রামে।

তিনি আরও জানান, গত ২৯ জানুয়ারি তিনি চীন থেকে বাংলাদেশে আসেন। এরপর দর্শনা বন্দর দিয়ে গতকাল বুধবার তিনি ভারতে প্রবেশ করেন। ভারতীয় ইমিগ্রেশন তার পাসপোর্টে চীন থেকে ফেরৎ আসার প্রমাণ পাওয়ায় তাকে ডিপোর্ট করে বাংলাদেশগামী “বন্ধন এক্সপ্রেস” ট্রেনে বিনা টিকিটে উঠিয়ে দেয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে কর্মরত উপ সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ জানান, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গঠিত মেডিকেল টিম সন্দেহভাজন যাত্রী জহিরুল ইসলামের শরীরে তাপমাত্রাসহ আনুসঙ্গিক পরীক্ষা নিরীক্ষা করেছে। বিষয়টি সিভিল সার্জনকে জানানো হয়েছে।

সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন বলেন, ওই ব্যক্তিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আতঙ্কিত হওয়ার মতো কোনোকিছু পাওয়া যায়নি। তাকে বাড়ি ফিরে গিয়ে ১৪ দিন ঘরের ভেতরে অবস্থানের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে যদি তার শারীরিক অসুস্থতা পরিলক্ষিত হয়, তবে নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তার বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়েছে।