• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৫৩ সন্ধ্যা

বাগেরহাটে ইউপি সদস্যের দুই চোখ খুঁচিয়ে নষ্ট করে দিলো প্রতিপক্ষ

  • প্রকাশিত ১০:৪৮ রাত ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০
বাগেরহাট

হামলাকারীরা রানাকে বেধড়ক মারধর করে এবং খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তার দুই চোখ নষ্ট করে পালিয়ে যায়

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা এক ইউপি সদস্যের দুই চোখ খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে নষ্ট করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলার বাড়ইখালী ইউনিয়নের শেখপড়া গ্রামে ইউপি সদস্য নাজমুল হাসান রানার (৪০) ওপর হামলার এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর অবস্থায় তাকে প্রথমে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার এজাহারভুক্ত  আসামি শাহাজালাল আকনকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

নাজমুল শেখপড়া গ্রামের নুর আলী হাওলাদারের ছেলে। শাহাজালাল আকন একই গ্রামের ইউনুচ আলী আকনের ছেলে।

রানার স্ত্রী মুকুল বেগম জানান, বাগেরহাট-৪ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলনের সাথে দেখা করে তার স্বামী মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পরে গভীর রাতে নাজমুলের চিৎকার শুনে বাড়ি থেকে লোকজন ছুটে গিয়ে দেখেন তার দুই চোখ দিয়ে অঝরে রক্ত পড়ছে। দ্রুত তাকে চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

মোড়েলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজিজুল ইসলাম জানান, রানার সাথে প্রতিবেশী রাসেল কাজী এবং ডালিমসহ কয়েকজনের মাছের ঘের নিয়ে শত্রুতা রয়েছে। ওই বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষরা পরিকল্পিতভাবে রানার ওপর হামলা চালায়। হামলাকারীরা রানাকে বেধড়ক মারধর করে এবং খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তার দুই চোখ নষ্ট করে পালিয়ে যায়। 

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রানার ভাই ফারুক হোসেন বাদী হয়ে ১৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ১২ থেকে ১৩ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে ওসি জানান।