• সোমবার, এপ্রিল ০৬, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:২০ সন্ধ্যা

চবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০

  • প্রকাশিত ১০:৩২ সকাল মার্চ ৫, ২০২০
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বুধবার (৪ মার্চ) দিবাগত রাতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। ইউএনবি

বুধবার (৪ মার্চ ) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এফ রহমান হলে চবি ছাত্রলীগের শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক সংগঠন ‘সিক্সটি নাইন’ ও ‘বিজয়’ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অন্তত ২০জন আহত হয়েছেন। এছাড়া পুলিশ অন্তত অর্ধ-শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করেছে। এই ঘটনায় ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বুধবার (৪ মার্চ) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এফ রহমান হলে চবি ছাত্রলীগের শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক সংগঠন “সিক্সটি নাইন” ও “বিজয়” গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। যা চলে রাত সাড়ে ৩টা পর্যন্ত।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের অনুসারী বিজয় গ্রুপ ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারীদের সিক্সটি নাইন গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনায় ক্যাম্পাসে ব্যাপক ভাঙচুর করা হয়েছে। এর আগে বুধবার বিকালেও ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতেও চারজন আহত হয়।

আগের ঘটনার রেশ ধরে মধ্যরাতে এফ রহমান হলে বিজয় গ্রুপের ওপর আক্রমণ চালায় মেয়র নাছিরের অনুসারী গ্রুপ। এসময় হলে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়। হলের জানালা-দরজায় ও বৈদ্যুতিক বাতি ভেঙে ফেলা হয়। একপর্যায়ে ৬টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। পরে বিজয় গ্রুপকে হটিয়ে এফ রহমান হল দখলে নেয় নাছির গ্রুপ।

রাতে এবিষয়ে যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এস এম মনিরুল হাসান বলেন, “আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ ও প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা রয়েছেন।”

এঘটনায় ৫২জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানায় হাটহাজারী থানা পুলিশ।

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর জানান, রাতে ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। ৫২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছে।