• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৭ সকাল

বন্ধুদের নিয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

  • প্রকাশিত ০৯:১২ রাত মার্চ ৫, ২০২০
গণধর্ষণ-ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি বিগস্টক

তারা মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিওচিত্র ধারণ করে বলেও অভিযোগ কিশোরীর

কুমিল্লায় বন্ধুদের নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণের মামলায় জুয়েল রানা (২৩) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

বুধবার (৪ মার্চ) রাতে অভিযান চালিয়ে কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার আলেখাচর এলাকা থেকে ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়।  

জুয়েল রানা কুমিল্লার হোমনা উপজেলার জয়পুর গ্রামের জয়নাল আবেদিনের ছেলে। তবে প্রধান আসামি জুয়েল রানা গ্রেফতার হলেও তার সহযোগি বন্ধুরা এখনও পালাতক রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) দুপুরে নগরীর শাকতলা এলাকায় র‌্যাব-১১ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ সব তথ্য জানান কোম্পানি অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

মামলার বরাত দিয়ে র‌্যাব এই কর্মকর্তা জানান, জুয়েল বিগত দুই-তিন মাস যাবৎ ভুক্তভোগী কিশোরীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করছিল। উভয়ের মধ্যে মোবাইল ফোনে যোগাযোগও হতো। গত ২১ ফেব্রুয়ারি জুয়েল তার সহযোগীদের সাথে পরামর্শক্রমে কিশোরীকে ধর্ষণের পরিকল্পনা করে। পরবর্তী সময়ে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি জুয়েল কিশোরীর সাথে দেখা করতে চায়। ওইদিন পার্শ্ববর্তী গ্রামের ফকির বাড়িতে বার্ষিক ওরশ ছিল।

ঘটনার সময় রাতে ওরশ দেখে দুই বোনের সঙ্গে বাড়ি ফিরছিল কিশোরী। এ সময় কথা বলার অজুহাত দেখিয়ে কিশোরীকে তার বোনদের কাছ থেকে আলাদা করে ফেলে জুয়েল এবং কাছাকাছি আরিফুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় জুয়েল তার অন্যান্য সহযোগীদের সহায়তায় জুসের সাথে ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে কৌশলে কিশোরীকে খাওয়ায় এবং জুয়েলসহ উপস্থিত ৫-৬ জন মিলে ধর্ষণে করে। এ সময় তারা মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিওচিত্র ধারণ করে বলেও অভিযোগ কিশোরীর।

ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর মা বাদী হয়ে গত ২৯ ফেব্রুয়ারি হোমনা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ধর্ষণের ঘটনার পর থেকেই আসামি জুয়েল রানা ও তার অন্যান্য সহযোগীরা পলাতক ছিল।